লাদাখ থেকে চিনা সেনা সরানোর প্রক্রিয়া শেষ হতে পারে বুধবার, হতে পারে আরও এক দফা সামরিক বৈঠক

First Published 7, Jul 2020, 5:32 PM

লাদাখের বিতর্কিত অঞ্চল থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে চিন। পিছু হাঁটছে পিপিলস লিবারেশ আর্মির সদস্যরা। কিন্তু চিন এতটাই শক্তপোক্ত ঘাঁটি তৈরি করেছিল যে সম্পর্ণ রূপে সেনা সরিয়ে নিতে সময় লাগবে বুধবার পর্যন্ত। সূত্রের খবর মঙ্গলবার গালওয়ান উপত্যকা অর্থাৎ ১৪ নম্বর পেট্রোল পয়েন্ট থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এদিনই সেনা সরিয়ে নেওয়ার সমস্ত প্রক্রিয়া শেষ হবে হটস্প্রিং অর্থাৎ ১৫ নম্বর পেট্রোল পয়েন্ট থেকে। কিন্তু গোগরা এলাকা অথবা ১৭এ পেট্রোল পয়েন্ট থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার কাজ শেষ হবে আগামিকাল। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে এখনও সময় লাগবে বলেই সেনা বাহিনী সূত্রের খবর। সম্ভবত  জুলাই মাসে  ভারত চিন সামরিক পর্যায়ে আরও একটি বৈঠক হতে পারে বলেই মনে করছেন সেনা কর্তারা। 
 

<p>লাদাখ সীমান্ত থেকে চিনা সেনা ২ কিলোমিটার সরে যাবে। সোমবারই চিনের তরফে এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু এই সেই সরানোর কাজ এক দিনে শেষ করতে পারনি পিপিলস লিবারেশন আর্মি। সেনা সরিয়ে নিতে বুধবার পর্যন্ত সময় লাগবে বলেই সূত্রের খবর। <br />
 </p>

লাদাখ সীমান্ত থেকে চিনা সেনা ২ কিলোমিটার সরে যাবে। সোমবারই চিনের তরফে এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু এই সেই সরানোর কাজ এক দিনে শেষ করতে পারনি পিপিলস লিবারেশন আর্মি। সেনা সরিয়ে নিতে বুধবার পর্যন্ত সময় লাগবে বলেই সূত্রের খবর। 
 

<p>মঙ্গলবার গালওয়ান উপত্যকা ও হটস্প্রিং এলাকা থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার কাজ শেষ করা হবে বলেই সূত্রের খবর। </p>

মঙ্গলবার গালওয়ান উপত্যকা ও হটস্প্রিং এলাকা থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার কাজ শেষ করা হবে বলেই সূত্রের খবর। 

<p>তবে গোগরা উপত্যকা থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার কাজ শেষ হবে আগামিকাল। এই এলাকা পেট্রোল পয়েন্ট ১৭এ নামে চিহ্নিত। <br />
 </p>

তবে গোগরা উপত্যকা থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার কাজ শেষ হবে আগামিকাল। এই এলাকা পেট্রোল পয়েন্ট ১৭এ নামে চিহ্নিত। 
 

<p><strong>গত ১৫ জুন গালওয়ান উপত্যকায় ১৪ নম্বর পেট্রোল পয়েন্ট সংলগ্ন এলাকায় চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছিল ভারতীয় সেনা। ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়। তবে এখনও পর্যন্ত চিন হতাহতের কোনও তথ্য পেশ করেনি। চিনের এক প্রাক্তন সেনা কর্তা জানিয়েছেন প্রায় ১০০ জন চিনা সেনা ওই সংঘর্ষের বলি হয়েছে। </strong></p>

গত ১৫ জুন গালওয়ান উপত্যকায় ১৪ নম্বর পেট্রোল পয়েন্ট সংলগ্ন এলাকায় চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছিল ভারতীয় সেনা। ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়। তবে এখনও পর্যন্ত চিন হতাহতের কোনও তথ্য পেশ করেনি। চিনের এক প্রাক্তন সেনা কর্তা জানিয়েছেন প্রায় ১০০ জন চিনা সেনা ওই সংঘর্ষের বলি হয়েছে। 

<p>সেনা বাহিনী সূত্রের খবর জুলাই মাসের মধ্যে লাদাখের বিস্তীর্ণ উপত্যকা থেকে সেনা সরিয়ে নেবে চিন। তেমনই কথা হয়েছে ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে। </p>

সেনা বাহিনী সূত্রের খবর জুলাই মাসের মধ্যে লাদাখের বিস্তীর্ণ উপত্যকা থেকে সেনা সরিয়ে নেবে চিন। তেমনই কথা হয়েছে ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে। 

<p>সেনা সূত্রের খবর ভারত ও চিনের মধ্যে সীমান্ত উত্তেজনা কমাতে সামরিক পর্যায়ে আরও কথা বার্তার প্রয়োজন রয়েছে। জুলাই মাসে আরও একদফা সামরিক বৈঠক হতে পারে বলে সূত্রের খবর। <br />
 </p>

সেনা সূত্রের খবর ভারত ও চিনের মধ্যে সীমান্ত উত্তেজনা কমাতে সামরিক পর্যায়ে আরও কথা বার্তার প্রয়োজন রয়েছে। জুলাই মাসে আরও একদফা সামরিক বৈঠক হতে পারে বলে সূত্রের খবর। 
 

<p style="text-align: center;">সেনা সূত্রের খবর প্যাংগং লেকের যে অংশ নিয়ে বিবাদ সেই এলাকার পরিস্থিতি এখনও তেমন উন্নতি হয়নি। দ্বিপাক্ষিক চুক্তি অনুযায়ী এই এলাকার যে অংশ টহল দিত ভারতীয় সেনা জওয়ানরা সেই সব এলাকায় প্রায় ১৯০টি তাবু সহ নির্মাণ রয়েছে। সূত্রের খবর সেগুলিতে হাতই দেয়নি চিনা সেনা। </p>

সেনা সূত্রের খবর প্যাংগং লেকের যে অংশ নিয়ে বিবাদ সেই এলাকার পরিস্থিতি এখনও তেমন উন্নতি হয়নি। দ্বিপাক্ষিক চুক্তি অনুযায়ী এই এলাকার যে অংশ টহল দিত ভারতীয় সেনা জওয়ানরা সেই সব এলাকায় প্রায় ১৯০টি তাবু সহ নির্মাণ রয়েছে। সূত্রের খবর সেগুলিতে হাতই দেয়নি চিনা সেনা। 

<p>গত জুন মাস থেকেই পূর্ব লাদাখের বিস্তীর্ণ এলাকায় ভারত চিন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর এলাকায় ভারও চিনা সেনাদের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছিল। </p>

গত জুন মাস থেকেই পূর্ব লাদাখের বিস্তীর্ণ এলাকায় ভারত চিন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর এলাকায় ভারও চিনা সেনাদের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছিল। 

<p>চিনা সেনা ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশ করেছিল বলেও অভিযোগ ভারতীয় জওয়ানদের। পাশাপাশি সীমান্তে প্যাংগং লেকে জলসীমা লঙ্ঘন করেছিল বলেও অভিযোগ। আকাশ সীমা লঙ্ঘন করেছিল চিন। <br />
 </p>

চিনা সেনা ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশ করেছিল বলেও অভিযোগ ভারতীয় জওয়ানদের। পাশাপাশি সীমান্তে প্যাংগং লেকে জলসীমা লঙ্ঘন করেছিল বলেও অভিযোগ। আকাশ সীমা লঙ্ঘন করেছিল চিন। 
 

<p>সীমান্ত সমস্যা মেটাতে ইতিমধ্যেই ভারত ও চিনের মধ্যে সামরিক পর্যায়ে ৩ দফা বৈঠক হয়েছিল। প্রথম দুটি বৈঠক হয়েছিল চিনের মোলডোকে। শেষ বৈঠকটি হয়েছিল লাদাখের চুসুলে। </p>

সীমান্ত সমস্যা মেটাতে ইতিমধ্যেই ভারত ও চিনের মধ্যে সামরিক পর্যায়ে ৩ দফা বৈঠক হয়েছিল। প্রথম দুটি বৈঠক হয়েছিল চিনের মোলডোকে। শেষ বৈঠকটি হয়েছিল লাদাখের চুসুলে। 

loader