আতঙ্কের ঘূর্ণিপাকে - ওড়িশায় ফণীর ভয়াল রূপের ফটো গ্যালারি

First Published 3, May 2019, 11:42 PM IST

  • শুক্রবার সকাল ৮টা নাগাদ প্রথম ওড়িশা উপকূলে আছড়ে পড়ে সাইক্লোন ফণী।
  • সেই সময় তার গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ১৭৫ কিলোমিটার।
  • ওড়িশার বিভিন্ন জায়গায় বহু গাছ উপড়ে গিয়েছে, বিজ্ঞাপণী হোর্ডিং খুলে পড়ে রাস্তা আটকে গিয়েছে।
  • প্রশাসন থেকে অবশ্য দ্রুতই সেই সব পরিষ্কার করার ব্যবস্থাও করা হয়।

 

শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে সাইক্লোন ফনি ওড়িশার উপকূল দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করা শুরু করে। দুপুর ২টো নাগাদ এই প্রক্রিয়া সমাপ্ত হয়।

শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে সাইক্লোন ফনি ওড়িশার উপকূল দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করা শুরু করে। দুপুর ২টো নাগাদ এই প্রক্রিয়া সমাপ্ত হয়।

সেই সময় ঝড়ের গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ১৭৫ কিলোমিটারের আশপাশে।

সেই সময় ঝড়ের গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ১৭৫ কিলোমিটারের আশপাশে।

উত্তাল হয়ে ওঠে সমুদ্র। বহুদূর পর্যন্ত এগিয়ে আসে সাগরের জল।

উত্তাল হয়ে ওঠে সমুদ্র। বহুদূর পর্যন্ত এগিয়ে আসে সাগরের জল।

ভুবনেশ্বর শহরে বহু গাছ উপড়ে যায়, বহু বড় বড় গাছের ডাল ভেঙে পড়ে।

ভুবনেশ্বর শহরে বহু গাছ উপড়ে যায়, বহু বড় বড় গাছের ডাল ভেঙে পড়ে।

দ্রুত স্থানীয় পুলিশ কর্মীরা কুড়ুল দিয়ে ডাল কেটে রাস্তা থেকে উপড়ে পড়া গাছ সরানোর কাজ শুরু করে দেয়।

দ্রুত স্থানীয় পুলিশ কর্মীরা কুড়ুল দিয়ে ডাল কেটে রাস্তা থেকে উপড়ে পড়া গাছ সরানোর কাজ শুরু করে দেয়।

শুধু গাছই নয় বহু জায়গায় বড় বড় বিজ্ঞাপনী হোর্ডিং-ও খুলে পড়ে রাস্তা আটকে গিয়েছে।

শুধু গাছই নয় বহু জায়গায় বড় বড় বিজ্ঞাপনী হোর্ডিং-ও খুলে পড়ে রাস্তা আটকে গিয়েছে।

পারাদ্বীপের সি অ্যাকোরিয়ামে একটি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। সেখানে আশ্রয় নিয়েছেন বহু মানুষ।

পারাদ্বীপের সি অ্যাকোরিয়ামে একটি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। সেখানে আশ্রয় নিয়েছেন বহু মানুষ।

এর মধ্যে ভুবনেশ্বর রেলহাসপাতালে জন্ম নেয় এক ফুটফুটে শিশু কন্যা, যার নাম রাখা হয়েছে ফণী।

এর মধ্যে ভুবনেশ্বর রেলহাসপাতালে জন্ম নেয় এক ফুটফুটে শিশু কন্যা, যার নাম রাখা হয়েছে ফণী।

ঝোড়ো হাওয়া লন্ডভন্ড করে দেয় বিজু পট্টনায়ক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর-ও।

ঝোড়ো হাওয়া লন্ডভন্ড করে দেয় বিজু পট্টনায়ক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর-ও।

নৌসেনা ড্রোনের মাধ্যমে নজরদারি চালিয়েছে পুরী শহরের উপরে। শহরের অনেক জায়গাতেই জল উঠে গিয়ে জনজীবনে সমস্যা সৃষ্টি করেছে।

নৌসেনা ড্রোনের মাধ্যমে নজরদারি চালিয়েছে পুরী শহরের উপরে। শহরের অনেক জায়গাতেই জল উঠে গিয়ে জনজীবনে সমস্যা সৃষ্টি করেছে।

loader