হাজার সমালোচনার মধ্যেও ম্যাজিক অব্যাহত, মহামারী ও লকডাউনের সংকটকালেও জনপ্রিয়তায় নজির মোদীর

First Published 20, Jul 2020, 11:40 AM

গত সাত মাস ধরে করোনার দাপটে ত্রস্ত গোটা বিশ্ব। এমন পরিস্থিতিতে আরও এক নজির গড়লেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী । গত দশ মাসে ট্যুইটারে এক কোটি ফলোয়ার বাড়ল তাঁর। ফলে ট্যুইটারে মোদীর র ফলোয়ার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৬ কোটি।

<p><strong>বারাক ওবামা, ডোনাল্ড ট্রাম্প, তার পরেই নরেন্দ্র মোদী। ট্যুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যার নিরিখে প্রথম তিনের এই ক্রম পরিবর্তন না হলেও প্রধানমন্ত্রীর ট্যুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যা এবার ছাড়িয়ে গেল ৬ কোটি। </strong></p>

বারাক ওবামা, ডোনাল্ড ট্রাম্প, তার পরেই নরেন্দ্র মোদী। ট্যুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যার নিরিখে প্রথম তিনের এই ক্রম পরিবর্তন না হলেও প্রধানমন্ত্রীর ট্যুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যা এবার ছাড়িয়ে গেল ৬ কোটি। 

<p><strong>গত বছরের সেপ্টেম্বরে মোদীর ফলোয়ার সংখ্যা ছাড়িয়েছিল ৫ কোটি। তার পর গত দশ মাসে আরও এক কোটি বাড়ল তাঁর ট্যুইটার ভক্তের সংখ্যা।</strong></p>

গত বছরের সেপ্টেম্বরে মোদীর ফলোয়ার সংখ্যা ছাড়িয়েছিল ৫ কোটি। তার পর গত দশ মাসে আরও এক কোটি বাড়ল তাঁর ট্যুইটার ভক্তের সংখ্যা।

<p><strong>ভারতীয়দের মধ্যে ট্যুইটার ফলোয়ারের সর্বোচ্চ সংখ্যার হিসেবে নরেন্দ্র মোদী দীর্ঘদিন ধরেই শীর্ষে রয়েছেন।</strong></p>

ভারতীয়দের মধ্যে ট্যুইটার ফলোয়ারের সর্বোচ্চ সংখ্যার হিসেবে নরেন্দ্র মোদী দীর্ঘদিন ধরেই শীর্ষে রয়েছেন।

<p><br />
<strong>বরাবরই সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় মোদী। সরকারের কোনও নীতি-সিদ্ধান্ত হোক, কিংবা দলীয় কর্মসূচি, কারও মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করা অথবা কারও সাফল্য— আম জনতার সঙ্গে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম হিসেবে ট্যুইটার ব্যবহার করেন প্রধানমন্ত্রী।</strong></p>


বরাবরই সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় মোদী। সরকারের কোনও নীতি-সিদ্ধান্ত হোক, কিংবা দলীয় কর্মসূচি, কারও মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করা অথবা কারও সাফল্য— আম জনতার সঙ্গে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম হিসেবে ট্যুইটার ব্যবহার করেন প্রধানমন্ত্রী।

<p><strong>প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পাঁচ বছর আগে থেকে অর্থাৎ ২০০৯ সাল থেকে এই মাইক্রো ব্লগিং সাইটে রয়েছেন মোদি। সেই সময় তিনি ছিলেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী ২০১০ সালে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা ছিল ১ লক্ষ। কিন্তু ২০১১ সালের নভেম্বর মাসে সংখ্যাটা পৌঁছে যায় ৪ লক্ষে। ২০১৪ সালে দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এই সংখ্যাটা অনেক গুন বেড়ে গিয়েছে। রবিবার সংখ্যা ৬০ মিলিয়ন ছাড়িয়ে গেল।</strong></p>

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পাঁচ বছর আগে থেকে অর্থাৎ ২০০৯ সাল থেকে এই মাইক্রো ব্লগিং সাইটে রয়েছেন মোদি। সেই সময় তিনি ছিলেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী ২০১০ সালে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা ছিল ১ লক্ষ। কিন্তু ২০১১ সালের নভেম্বর মাসে সংখ্যাটা পৌঁছে যায় ৪ লক্ষে। ২০১৪ সালে দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এই সংখ্যাটা অনেক গুন বেড়ে গিয়েছে। রবিবার সংখ্যা ৬০ মিলিয়ন ছাড়িয়ে গেল।

<p><br />
<strong>সারা বিশ্বে ট্যুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যার হিসেবে শীর্ষে রয়েছেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা ১২ কোটি ৭০ লক্ষ। </strong></p>


সারা বিশ্বে ট্যুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যার হিসেবে শীর্ষে রয়েছেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা ১২ কোটি ৭০ লক্ষ। 

<p><strong>৮ কোটি ৩০ লক্ষের বেশি ফলোয়ার রয়েছে বর্তমান  মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন।</strong></p>

৮ কোটি ৩০ লক্ষের বেশি ফলোয়ার রয়েছে বর্তমান  মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন।

<p style="text-align: justify;"><strong>ট্রাম্পের পরেই তিন নম্বরে রয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রীর  ফলোয়ারের সংখ্যা বাড়তে দেখে ওয়াকিবহাল মহল বলছে, বিশ্বজুড়ে সংকটকালেও মোদির জনপ্রিয়তায় ভাঁটা পড়েনি। উল্টে এমন পরিস্থিতিতেও তাঁর জনপ্রিয়তা আরও বেড়েছে। </strong></p>

ট্রাম্পের পরেই তিন নম্বরে রয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রীর  ফলোয়ারের সংখ্যা বাড়তে দেখে ওয়াকিবহাল মহল বলছে, বিশ্বজুড়ে সংকটকালেও মোদির জনপ্রিয়তায় ভাঁটা পড়েনি। উল্টে এমন পরিস্থিতিতেও তাঁর জনপ্রিয়তা আরও বেড়েছে। 

<p><strong>প্রধানমন্ত্রী মোদী নিজে  মাইক্রো ব্লগিং সাইট ট্যুইটারে ফলো করেন ২৩৫৪ জনকে।</strong></p>

প্রধানমন্ত্রী মোদী নিজে  মাইক্রো ব্লগিং সাইট ট্যুইটারে ফলো করেন ২৩৫৪ জনকে।

<p style="text-align: justify;"><strong>গত বছরই ইনস্টাগ্রামে মোদীর ফলোয়ার সংখ্যা ৩ কোটি ছাড়িয়ে যায়। রাজনীতিকদের মধ্যে ইনস্টাগ্রামে বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন নমো। অন্যদের থেকে তাঁর ফলোয়ার সংখ্যাও সবথেকে বেশি। </strong></p>

গত বছরই ইনস্টাগ্রামে মোদীর ফলোয়ার সংখ্যা ৩ কোটি ছাড়িয়ে যায়। রাজনীতিকদের মধ্যে ইনস্টাগ্রামে বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন নমো। অন্যদের থেকে তাঁর ফলোয়ার সংখ্যাও সবথেকে বেশি। 

<p><strong>ইনস্টাগ্রামে জনপ্রিয়তার নিরিখে রাজনীতিকদের মধ্যে মোদীর পরে আছেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো ইউডোডো। তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা ২৫.৬ মিলিয়ন। এর পরে আছেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। গত ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত ওবামার ফলোয়ার ২.৪৮ কোটি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও মোদীর থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছেন।</strong><br />
 </p>

ইনস্টাগ্রামে জনপ্রিয়তার নিরিখে রাজনীতিকদের মধ্যে মোদীর পরে আছেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো ইউডোডো। তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা ২৫.৬ মিলিয়ন। এর পরে আছেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। গত ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত ওবামার ফলোয়ার ২.৪৮ কোটি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও মোদীর থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছেন।
 

<p><br />
<strong> ট্যুইটারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ এর ২ কোটি ১৬ লক্ষ ফলোয়ার্স আছে। উনি ২০১৩ এর মে মাসে ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট খোলেন। </strong></p>


 ট্যুইটারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ এর ২ কোটি ১৬ লক্ষ ফলোয়ার্স আছে। উনি ২০১৩ এর মে মাসে ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট খোলেন। 

<p><strong>বিরোধী নেতা তথা কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি আর সাংসদ রাহুল গান্ধীর ট্যুইটারে ১ কোটি ৫২ লক্ষ ফলোয়ার্স আছে।</strong></p>

বিরোধী নেতা তথা কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি আর সাংসদ রাহুল গান্ধীর ট্যুইটারে ১ কোটি ৫২ লক্ষ ফলোয়ার্স আছে।

loader