রাম মন্দিরের শিলান্যাস করে মোদী টানলেন স্বাধীনতা আন্দোলনের কথা, বললেন সরযূর তীরে হল স্বর্ণযুগের সূচনা

First Published 5, Aug 2020, 2:42 PM

দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান। অযোধ্যায় রাম মন্দিরের ভূমিপুজা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দীর্ঘ ২৯ বছর পর অযোধ্যায় গেলেন তিনি। ইতিহাস বলছে এই প্রথম কোনো প্রধানমন্ত্রী এরকম একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। 
 

<p><strong>&nbsp;২৯ বছর পরে অযোধ্যায় &nbsp;গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

 ২৯ বছর পরে অযোধ্যায়  গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 
 

<p><strong>বেলা সাড়ে এগারোটা নাগাদ অযোধ্যায় পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী।&nbsp;</strong></p>

বেলা সাড়ে এগারোটা নাগাদ অযোধ্যায় পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। 

<p><strong>সাকেত কলেজের মাঠে তাঁকে স্বাগত জানালেন যোগী আদিত্যনাথ।</strong></p>

সাকেত কলেজের মাঠে তাঁকে স্বাগত জানালেন যোগী আদিত্যনাথ।

<p><strong>এখান থেকে হনুমানগড়ি মন্দিরে পৌঁছান তিনি। এখানে তাঁকে রুপোর মুকুট ও বস্ত্র উপহার দেওয়া হয়। মন্দিরের প্রধান পুরোহিত রাজু দাস সেই পাগড়ি &nbsp;মোদীর মাথায় পড়িয়ে দেন।&nbsp;</strong></p>

এখান থেকে হনুমানগড়ি মন্দিরে পৌঁছান তিনি। এখানে তাঁকে রুপোর মুকুট ও বস্ত্র উপহার দেওয়া হয়। মন্দিরের প্রধান পুরোহিত রাজু দাস সেই পাগড়ি  মোদীর মাথায় পড়িয়ে দেন। 

<p><strong>মন্দিরে দেবতার উদ্দেশ্যে আরতি করেন তিনি। সেখানে ১০ মিনিট থাকার পর রাম জন্মভূমির উদ্দেশ্যে রওনা দেন মোদী।</strong></p>

মন্দিরে দেবতার উদ্দেশ্যে আরতি করেন তিনি। সেখানে ১০ মিনিট থাকার পর রাম জন্মভূমির উদ্দেশ্যে রওনা দেন মোদী।

<p><strong>&nbsp;গণেশ দেবতার পূজার মাধ্যমে &nbsp;রাম মন্দিরের ভূমিপুজার অনুষ্ঠানের সূচনা করেন মোদী।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

 গণেশ দেবতার পূজার মাধ্যমে  রাম মন্দিরের ভূমিপুজার অনুষ্ঠানের সূচনা করেন মোদী। 
 

<p><strong>৪০ মিনিট ধরে পুজো ও যজ্ঞ করার পর &nbsp;৪০ কেজি রুপোর ইট দিয়ে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।</strong></p>

৪০ মিনিট ধরে পুজো ও যজ্ঞ করার পর  ৪০ কেজি রুপোর ইট দিয়ে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

<p><strong>রুপোর বেলচা দিয়ে অযোধ্যায় জন্মভূমিতে রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন &nbsp;প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নয়টি ইঁট সেখানে রাখা হয়েছিল। ১৯৮৯ সালে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসেছিল ওই ইঁটগুলি।</strong></p>

রুপোর বেলচা দিয়ে অযোধ্যায় জন্মভূমিতে রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নয়টি ইঁট সেখানে রাখা হয়েছিল। ১৯৮৯ সালে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসেছিল ওই ইঁটগুলি।

<p><strong>রাম মন্দিরের জন্য মোট ২ লক্ষ ৭৫ হাজার ইঁট পাঠিয়েছে ভক্তরা। যার মধ্যে 'জয় শ্রী রাম' খোদাই করা ইঁট বাছাই করা হয়েছে।</strong></p>

রাম মন্দিরের জন্য মোট ২ লক্ষ ৭৫ হাজার ইঁট পাঠিয়েছে ভক্তরা। যার মধ্যে 'জয় শ্রী রাম' খোদাই করা ইঁট বাছাই করা হয়েছে।

<p><strong>&nbsp;বেলা ১২ টা ৫১ মিনিট নাগাদ পুজো সম্পন্ন হলে পায়ে হেঁটে মঞ্চের উদ্দেশ্যে রওনা দেন প্রধানমন্ত্রী।</strong></p>

 বেলা ১২ টা ৫১ মিনিট নাগাদ পুজো সম্পন্ন হলে পায়ে হেঁটে মঞ্চের উদ্দেশ্যে রওনা দেন প্রধানমন্ত্রী।

<p><strong>এদিন রাম মন্দিরের ছবি দেওয়া একটি ডাক টিকিটও প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।</strong></p>

এদিন রাম মন্দিরের ছবি দেওয়া একটি ডাক টিকিটও প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

<p><strong>বক্তব্য রাখতে গিয়ে মোদী বলেন সরযূ নদীর তীরে স্বর্ণযুগের সূচনা হল।&nbsp;</strong></p>

বক্তব্য রাখতে গিয়ে মোদী বলেন সরযূ নদীর তীরে স্বর্ণযুগের সূচনা হল। 

<p><strong>প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য, &nbsp;‘‘বহু দিনের প্রতীক্ষা শেষ। এত দিন তাঁবুতে মাথা গুঁজে ছিলেন রামলালা। এ বার তাঁর জন্য সুবিশাল মন্দির নির্মিত হবে। বহু শতক ধরে যে ভাঙা-গড়ার খেলা চলে আসছে, আজ রামজন্মভূমি তা থেকে মুক্ত হল।’’</strong></p>

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য,  ‘‘বহু দিনের প্রতীক্ষা শেষ। এত দিন তাঁবুতে মাথা গুঁজে ছিলেন রামলালা। এ বার তাঁর জন্য সুবিশাল মন্দির নির্মিত হবে। বহু শতক ধরে যে ভাঙা-গড়ার খেলা চলে আসছে, আজ রামজন্মভূমি তা থেকে মুক্ত হল।’’

<p>প্রধানমন্ত্রী মোদী মন্দিরের ভিত্তি খনন করতে রূপোর শাবল এর ব্যবহার করেছেন। এই সময়ে, ভিত্তি ইটের উপর সিমেন্ট দেওয়ার জন্য সিলভার ট্রেরও ব্যবহার করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।&nbsp;</p>

প্রধানমন্ত্রী মোদী মন্দিরের ভিত্তি খনন করতে রূপোর শাবল এর ব্যবহার করেছেন। এই সময়ে, ভিত্তি ইটের উপর সিমেন্ট দেওয়ার জন্য সিলভার ট্রেরও ব্যবহার করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। 

<p><strong>স্বাধীনতা আন্দোলনে সারা দেশ যোগ দিয়েছিল। রামমন্দিরের জন্যও অনেকে বলিদান দিয়েছেন। আজ তাঁদের প্রতীক্ষা শেষ হল বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।&nbsp;</strong></p>

স্বাধীনতা আন্দোলনে সারা দেশ যোগ দিয়েছিল। রামমন্দিরের জন্যও অনেকে বলিদান দিয়েছেন। আজ তাঁদের প্রতীক্ষা শেষ হল বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। 

<p><strong>&nbsp;মোদী বলেন, ‘রামের জয়ধ্বনি সারা বিশ্বে শোনা যাচ্ছে। শুধু দেশবাসী নয় সারা পৃথিবীর ভারতবাসী শুনতে পাচ্ছেন। সরযূ নদীর তীরে এক স্বর্ণযুগের সূচনা হল। আজ গোটা ভারতই রামময়, রোমাঞ্চিত।’</strong><br />
&nbsp;</p>

 মোদী বলেন, ‘রামের জয়ধ্বনি সারা বিশ্বে শোনা যাচ্ছে। শুধু দেশবাসী নয় সারা পৃথিবীর ভারতবাসী শুনতে পাচ্ছেন। সরযূ নদীর তীরে এক স্বর্ণযুগের সূচনা হল। আজ গোটা ভারতই রামময়, রোমাঞ্চিত।’
 

loader