আর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা, অগস্টেই বাজারে আসছে রাশিয়ার তৈরি করোনার ভ্যাকসিন

First Published 14, Jul 2020, 7:41 PM

করোনাভাইরাসের  ভ্যাকসিন নিয়ে গোটা বিশ্বের বিজ্ঞানীরা লড়ে যাচ্ছেন। কে আগে ভ্যাকসিন বাজারে আনবে, সেই নিয়ে অলিখিত প্রতিযোগিতাও শুরু হয়ে গিয়েছে। এরই মধ্যে রাশিয়া  দাবি করেছে, মধ্য আগস্টের মধ্যেই বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিন তারা বাজারে আনতে পারবে।

<p><strong>রবিবার রাশিয়ার সেচনেভ বিশ্ববিদ্যালয়ের  গবেষকরা দাবি করেন যে মানবদেহে করোনার ভ্যাকসিন  প্রয়োগের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করে ফেলেছে তাঁরা।</strong></p>

রবিবার রাশিয়ার সেচনেভ বিশ্ববিদ্যালয়ের  গবেষকরা দাবি করেন যে মানবদেহে করোনার ভ্যাকসিন  প্রয়োগের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করে ফেলেছে তাঁরা।

<p><strong>প্রথম যে দলটির় উপরে পরীক্ষামূলক ভাবে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছিল, তাঁরা আগামী বুধবার ছাড়া পাবেন। আর দ্বিতীয় দল ছাড়া পাবে ২০ জুলাই।</strong></p>

প্রথম যে দলটির় উপরে পরীক্ষামূলক ভাবে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছিল, তাঁরা আগামী বুধবার ছাড়া পাবেন। আর দ্বিতীয় দল ছাড়া পাবে ২০ জুলাই।

<p><strong>মস্কো টাইমসের রিপোর্ট অনুযায়ী সেচনেভ বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি একই টিকা গামালেই ন্যাশনাল রিসার্চ সেন্টার ফর এপিডিমিওলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজিও তৈরি করেছে। রাশিয়ার সেনাবাহিনী এই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা শুরু করেছে।</strong></p>

মস্কো টাইমসের রিপোর্ট অনুযায়ী সেচনেভ বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি একই টিকা গামালেই ন্যাশনাল রিসার্চ সেন্টার ফর এপিডিমিওলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজিও তৈরি করেছে। রাশিয়ার সেনাবাহিনী এই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা শুরু করেছে।

<p><strong>গামালেই সেন্টারের প্রধান অ্যালেক্স্যান্ডার গিন্টসবার্গ, রাশিয়ার সরকারি সংবাদমাধ্যম টিএএসএসকে জানিয়েছেন যে তিনি আশা করেন ১২ থেকে ১৪ আগস্টের মধ্যে এই টিকা আসার সম্ভাবনা রয়েছে।</strong></p>

গামালেই সেন্টারের প্রধান অ্যালেক্স্যান্ডার গিন্টসবার্গ, রাশিয়ার সরকারি সংবাদমাধ্যম টিএএসএসকে জানিয়েছেন যে তিনি আশা করেন ১২ থেকে ১৪ আগস্টের মধ্যে এই টিকা আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

<p><strong>অর্থাৎ আগস্ট থেকে নিয়ন্ত্রিত মাত্রায় এই টিকা উৎপাদন শুরু হতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। সেই সঙ্গে তিনি আরও বলেন যে সেপ্টেম্বরে বেসরকারি অনেক সংস্থা এই টিকার ব্যাপক উৎপাদন শুরু করতে পারে।</strong></p>

অর্থাৎ আগস্ট থেকে নিয়ন্ত্রিত মাত্রায় এই টিকা উৎপাদন শুরু হতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। সেই সঙ্গে তিনি আরও বলেন যে সেপ্টেম্বরে বেসরকারি অনেক সংস্থা এই টিকার ব্যাপক উৎপাদন শুরু করতে পারে।

<p><strong>অন্য দিকে সেচেনভ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ইয়েলেনা স্মলিয়ারচুক বলেন, “গবেষণার কাজ শেষ হয়েছে। প্রমাণিত হয়েছে যে টিকাটি পুরোপুরি নিরাপদ।”</strong></p>

অন্য দিকে সেচেনভ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ইয়েলেনা স্মলিয়ারচুক বলেন, “গবেষণার কাজ শেষ হয়েছে। প্রমাণিত হয়েছে যে টিকাটি পুরোপুরি নিরাপদ।”

<p><strong>মস্কো আগেই জানিয়েছিল যে সে দেশে আলাদা আলাদা ভাবে করোনাভাইরাসের ৫০টি টিকার ওপরে কাজ চলছে। এর মধ্যে আপাতত এই টিকাই যে এগিয়ে রয়েছে তা বলাই বাহুল্য।</strong><br />
 </p>

মস্কো আগেই জানিয়েছিল যে সে দেশে আলাদা আলাদা ভাবে করোনাভাইরাসের ৫০টি টিকার ওপরে কাজ চলছে। এর মধ্যে আপাতত এই টিকাই যে এগিয়ে রয়েছে তা বলাই বাহুল্য।
 

<p><strong>এদিকে অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকিসেনরও পরীক্ষামূলক প্রয়োগে মিলছে সফলতা। ফলে অক্টোবর মাস নাগাদ এই ভ্যাকসিনও মিলতে পারে, এমনই জানাচ্ছে, লন্ডনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।</strong></p>

এদিকে অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকিসেনরও পরীক্ষামূলক প্রয়োগে মিলছে সফলতা। ফলে অক্টোবর মাস নাগাদ এই ভ্যাকসিনও মিলতে পারে, এমনই জানাচ্ছে, লন্ডনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

loader