করোন-বিশ্বে প্রথম প্রতিষেধক স্পুটিনিক ভি, রাশিয়ায় ছাড়পত্র পেল সাধারণের ব্যবহারের

First Published 24, Sep 2020, 9:25 PM

গোটা বিশ্ব যখন করোনাভাইরাসের প্রতিষেধকের জন্য হন্য হয়ে বসে রয়েছে তখন, বাজারে এসে গেল বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক স্পুটিনিক ভি। বৃহস্পতিবার এমনই দাবি করেছে মস্কোর রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম। তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল রান শেষ হওয়ার আগেই রাশিয়া সাধারণ মানুষের জন্য প্রতিষধক সরবরাহ করতে শুরু করল। তবে প্রথম দফায় ফ্রন্টলাইন কর্মীদেরও প্রতিষেধক দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।  সম্ভবত দুর্গা পুজোর আগে এদেশে শুরু হবে রাশিয়ার প্রতিষেধকের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল রান। 
 

<p><strong>করোনাভাইরাসের প্রথম প্রতিষেধকের খেতাব জিতে নিল রাশিয়ার স্পুটিনিক ভি। বৃহস্পতিবার মস্কোর স্টেট মিডিয়ার পক্ষ থেকে জানান &nbsp;হয়েছে, স্পুটিনিক ভি-এর প্রথম ব্যাচটি নাগরিকদের ব্যবহারের জন্য মস্কোতে এসে পৌঁছেছে। তবে এত তাড়াতাড়ি প্রতিষেধক সাধারণ মানুষের জন্য সরবরাহ করা হবে তেমন কোনও তথ্য আগে থেকে দেওয়া হয়নি।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

করোনাভাইরাসের প্রথম প্রতিষেধকের খেতাব জিতে নিল রাশিয়ার স্পুটিনিক ভি। বৃহস্পতিবার মস্কোর স্টেট মিডিয়ার পক্ষ থেকে জানান  হয়েছে, স্পুটিনিক ভি-এর প্রথম ব্যাচটি নাগরিকদের ব্যবহারের জন্য মস্কোতে এসে পৌঁছেছে। তবে এত তাড়াতাড়ি প্রতিষেধক সাধারণ মানুষের জন্য সরবরাহ করা হবে তেমন কোনও তথ্য আগে থেকে দেওয়া হয়নি। 
 

<p><strong>করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে রাশিয়া প্রথম থেকেই প্রতিষেধক তৈরির ওপর জোর দিচ্ছিল। কারণ খুব অল্প দিনের ব্যবধানে পুতিনের দেশ আরও একটি প্রতিষেধক নিয়ে আসতে চলেছে বলে জানা গেছে।&nbsp;</strong></p>

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে রাশিয়া প্রথম থেকেই প্রতিষেধক তৈরির ওপর জোর দিচ্ছিল। কারণ খুব অল্প দিনের ব্যবধানে পুতিনের দেশ আরও একটি প্রতিষেধক নিয়ে আসতে চলেছে বলে জানা গেছে। 

<p><strong>চলতি মাসের গোড়ার দিকে রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানিয়েছিলেন, সাধারণের ব্যবহারের জন্য করোনাভাইরাসের যে প্রতিষেধক তৈরি হয়েছে তা খুব অল্প দিনের মধ্যেই সরবরাহ করা হবে।</strong></p>

চলতি মাসের গোড়ার দিকে রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানিয়েছিলেন, সাধারণের ব্যবহারের জন্য করোনাভাইরাসের যে প্রতিষেধক তৈরি হয়েছে তা খুব অল্প দিনের মধ্যেই সরবরাহ করা হবে।

<p><strong>রাশিয়ান স্বাস্থ্য মন্ত্রকের অধীনে গামালিয়া &nbsp;ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিক অ্যান্ড মাইক্রোবায়লজি করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক অবিষ্কার করেছে। মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। আর সেই কারণেই সাধারণ মানুষদের ব্যবহারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।&nbsp;</strong></p>

রাশিয়ান স্বাস্থ্য মন্ত্রকের অধীনে গামালিয়া  ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিক অ্যান্ড মাইক্রোবায়লজি করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক অবিষ্কার করেছে। মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। আর সেই কারণেই সাধারণ মানুষদের ব্যবহারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

<p><strong>রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রী আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, যেসব মানুষেদের মধ্যে সংক্রমণের ঝুঁকি সবথেকে বেশি তাদেরই প্রতিষেধক দেওয়া হবে। সেইমত চিকিৎসক, শিক্ষকদের প্রথম প্রতিষেধক দেওয়া হবে।&nbsp;</strong></p>

রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রী আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, যেসব মানুষেদের মধ্যে সংক্রমণের ঝুঁকি সবথেকে বেশি তাদেরই প্রতিষেধক দেওয়া হবে। সেইমত চিকিৎসক, শিক্ষকদের প্রথম প্রতিষেধক দেওয়া হবে। 

<p><strong>&nbsp;তবে এই প্রতিষেধকটির তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল এখনও শেষ হয়েনি। তৃতীয় পর্যায়েরা হিউম্যান ট্রায়াল শেষ করার আগেই এটি ব্যবহারের জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হল। তৃতীয় পর্যায়ের হিউম্যান ট্রায়ালে ৪০ হাজার মানুষের ওপর প্রতিষেধক প্রয়োগ করা হয়েছিল।&nbsp;</strong></p>

 তবে এই প্রতিষেধকটির তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল এখনও শেষ হয়েনি। তৃতীয় পর্যায়েরা হিউম্যান ট্রায়াল শেষ করার আগেই এটি ব্যবহারের জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হল। তৃতীয় পর্যায়ের হিউম্যান ট্রায়ালে ৪০ হাজার মানুষের ওপর প্রতিষেধক প্রয়োগ করা হয়েছিল। 

<p><strong>&nbsp;রাশিয়ার পক্ষ থেকে কিরিল দিমিত্রিভ বলেছেন, সম্ভবত অক্টোবর বা নভেম্বর মাসে হিউম্যান ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ফল প্রকাশ করা হবে।&nbsp;</strong></p>

 রাশিয়ার পক্ষ থেকে কিরিল দিমিত্রিভ বলেছেন, সম্ভবত অক্টোবর বা নভেম্বর মাসে হিউম্যান ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ফল প্রকাশ করা হবে। 

<p><b>অক্টোবরে সম্ভবত এই দেশে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয়ে রাশিয়ার করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক স্পুটিনিক ভি-এর। &nbsp;</b></p>

অক্টোবরে সম্ভবত এই দেশে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয়ে রাশিয়ার করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক স্পুটিনিক ভি-এর।  

loader