চুল ঝড়ে পাতলা হয়ে যাচ্ছে, এই ৮ খাবার যা চুল পড়া কমাতে ম্যাজিকের মত কাজ করে

First Published 12, Sep 2020, 4:08 PM

চুল পড়া আজকের দিনে এক অন্যতম প্রধান সমস্যা। এর জন্য বাজারে বিভিন্ন তেল রয়েছে, যা চুল পড়া কমাতে সহায়তা করে। তবে কোন তেল, কতটা নিরাপদ তা আমাদের কারও জানা নেই। প্রাকৃতিক প্রতিকার চুলের স্বাস্থ্যের জন্য সর্বদা ভাল। খারাপ ডায়েট, বদহজম এবং কম মাত্রায় চুলের যত্ন সহ বেশ কয়েকটি কারণের কারণে চুল ক্ষতি হতে পারে। চুল পড়া কমাতে ডায়েট বড় ভূমিকা পালন করে। ভিটামিন এ, সি, ডি, ই, প্রোটিন, জিঙ্ক এবং আয়রনের মতো পুষ্টিকর চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর। এই পুষ্টিগুলি চুলকে শক্তিশালী, চকচকে করে এবং বিকাশের উন্নতি করে। পুষ্টিবিদরা তাই চুলের স্বাস্থ্য বৃদ্ধির জন্য আটটি খাবারের বিষয়ে জানিয়েছেন, যা চুল পড়া কমাতে সহায়তা করতে পারে ।

<p><strong>পালং: পালং শাকে আয়রন, ভিটামিন এ এবং সি জাতীয় পুষ্টি থাকে। পালং চুলকে আরও মজবুত করতে এবং চুল পড়া কমাতে খুব উপকারী। পালং ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতেও সহায়তা করে। এতে থাকা ভিটামিন এ রয়েছে কোষের পুনর্গঠনে সহায়তা করে। এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা এবং রঙ বাড়ায়।</strong></p>

পালং: পালং শাকে আয়রন, ভিটামিন এ এবং সি জাতীয় পুষ্টি থাকে। পালং চুলকে আরও মজবুত করতে এবং চুল পড়া কমাতে খুব উপকারী। পালং ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতেও সহায়তা করে। এতে থাকা ভিটামিন এ রয়েছে কোষের পুনর্গঠনে সহায়তা করে। এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা এবং রঙ বাড়ায়।

<p><strong>ডিম: ডিম হ'ল প্রোটিনের সমৃদ্ধ উত্স যা চুলের বৃদ্ধির জন্য উন্নত উপাদান। প্রোটিন গ্রহণ চুলের ক্ষতি রোধ করে এবং চুল সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।</strong></p>

ডিম: ডিম হ'ল প্রোটিনের সমৃদ্ধ উত্স যা চুলের বৃদ্ধির জন্য উন্নত উপাদান। প্রোটিন গ্রহণ চুলের ক্ষতি রোধ করে এবং চুল সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

<p><strong>মাছ: মাছ চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। মাছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে, যা চুল পড়া রোধ করতে এবং চুলের ঘনত্ব বাড়াতে সহায়তা করে।</strong></p>

মাছ: মাছ চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। মাছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে, যা চুল পড়া রোধ করতে এবং চুলের ঘনত্ব বাড়াতে সহায়তা করে।

<p><strong>ফুলকপি: ফুলকপিতে ভিটামিন এ, সোডিয়াম, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, দস্তা এবং আয়রন থাকে। এগুলি সবই চুল পড়া কমানোর সেরা উপায়।&nbsp;</strong></p>

ফুলকপি: ফুলকপিতে ভিটামিন এ, সোডিয়াম, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, দস্তা এবং আয়রন থাকে। এগুলি সবই চুল পড়া কমানোর সেরা উপায়। 

<p><strong>অ্যাভোকাডো: চুল পড়া কমাতে অ্যাভোকাডো খুব উন্নত ভূমিকা পালন করে। অ্যাভোকাডো ভিটামিন ই সমৃদ্ধ। এটি চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর এবং চুল পড়া রোধ করে।&nbsp;</strong></p>

অ্যাভোকাডো: চুল পড়া কমাতে অ্যাভোকাডো খুব উন্নত ভূমিকা পালন করে। অ্যাভোকাডো ভিটামিন ই সমৃদ্ধ। এটি চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর এবং চুল পড়া রোধ করে। 

<p><strong>ওটস: ওটস শরীরের জন্য স্বাস্থ্যকর। প্রতিদিন এক বাটি ওটস খাওয়া চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর। এটি চুল ঘন এবং শক্তিশালী করে তোলে এবং চুল পড়া রোধ করে। এটিতে জিংক, ওমেগা -সিক্স ফ্যাটি অ্যাসিড, আয়রন এবং পলিঅনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিডের মতো পুষ্টি উপাদান রয়েছে। এটি চুলের বৃদ্ধিতে উত্সাহ দেয়।</strong></p>

ওটস: ওটস শরীরের জন্য স্বাস্থ্যকর। প্রতিদিন এক বাটি ওটস খাওয়া চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর। এটি চুল ঘন এবং শক্তিশালী করে তোলে এবং চুল পড়া রোধ করে। এটিতে জিংক, ওমেগা -সিক্স ফ্যাটি অ্যাসিড, আয়রন এবং পলিঅনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিডের মতো পুষ্টি উপাদান রয়েছে। এটি চুলের বৃদ্ধিতে উত্সাহ দেয়।

<p><strong>আখরোট: আখরোটে অনেক রকম পুষ্টিগুণ রয়েছে, যা চুলের পক্ষে ভাল এবং চুলের বৃদ্ধিতে প্রচার করে। এটি ভিটামিন, দস্তা এবং প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ। এতে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে যা চুল বৃদ্ধির জন্য উপকারী।</strong></p>

আখরোট: আখরোটে অনেক রকম পুষ্টিগুণ রয়েছে, যা চুলের পক্ষে ভাল এবং চুলের বৃদ্ধিতে প্রচার করে। এটি ভিটামিন, দস্তা এবং প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ। এতে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে যা চুল বৃদ্ধির জন্য উপকারী।

<p><strong>গাজর: চুল পড়া কমাতে গাজর খুব ভাল উপাদান। বিটা ক্যারোটিন একটি পুষ্টি যা চুল পড়া রোধে সহায়তা করে। গাজর বিটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ। গাজরে ভিটামিন কে, সি, বি 6, বি 1, বি 3, বি 2, ফাইবার, পটাসিয়াম এবং ফসফরাস সমৃদ্ধ যা স্বাস্থ্যকর এবং শক্তিশালী চুলের জন্য প্রয়োজনীয়। প্রতিদিন গাজরের রস পান করা চুলের ক্ষতিকে উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করতে পারে।</strong></p>

গাজর: চুল পড়া কমাতে গাজর খুব ভাল উপাদান। বিটা ক্যারোটিন একটি পুষ্টি যা চুল পড়া রোধে সহায়তা করে। গাজর বিটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ। গাজরে ভিটামিন কে, সি, বি 6, বি 1, বি 3, বি 2, ফাইবার, পটাসিয়াম এবং ফসফরাস সমৃদ্ধ যা স্বাস্থ্যকর এবং শক্তিশালী চুলের জন্য প্রয়োজনীয়। প্রতিদিন গাজরের রস পান করা চুলের ক্ষতিকে উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করতে পারে।

loader