17

নতুন করে হাতির আতঙ্ক পশ্চিম মেদিনীপুরে। বৃহস্পতিবার ভোরে প্রায় তিরিশ হাতির একটি দল ঢুকল মেদিনীপুর সদর ব্লক এলাকায়।

Subscribe to get breaking news alerts

27

রাত দুটো নাগাদ মানিকপাড়ার জঙ্গল থেকে কংসাবতী নদী পেরিয়ে সদর ব্লক এলাকায় ঢুকে পড়ে হাতিগুলি। বন দফতর খবর দিয়ে হাতির পালটি জঙ্গলে ফেরাতে উদ্যোগ নেন গ্রামবাসীরা। হাতির পালে রয়েছে কয়েকটি হস্তিশাবকও।

37

পশ্চিম মেদিনীপুরের বিভিন্ন জঙ্গলে প্রায় দেড়শোর বেশি হাতি রয়েছে। মেদিনীপুর সদর ব্লকের চাঁদড়ার জঙ্গলে রেসিডেন্সিয়াল হাতি বছরভর ছিল। শীতের আগেই দলমার পাহাড় ছেড়ে মেদিনীপুরের জঙ্গলগুলিতে আশ্রয় নিচ্ছে হাতিগুলি।

47

মেদিনীপুর সদরের ফরিদপুর এলাকায় প্রায় ৩০টি হাতির একটি দল গ্রামে ঢোকে। হাতিগুলিকে বাঁকুড়াতে পাঠানোর চেষ্টা করেছিল বন দফতর। কিন্তু, তাড়া খেয়ে মেদিনীপুরের গ্রাম লাগোয়া জঙ্গলগুলিতে থেকে যায়।
 

57

জঙ্গল লাগোয়া গ্রামগুলিতে তিরিশ হাতির পাল থাকায় আতঙ্ক রয়েছেন গ্রামবাসীরা। ধানের ক্ষেতের উপর দিয়ে ধান পাল যাওয়ায় বড়সড় ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা।
 

67

গ্রামবাসীদের তাড়া খেয়ে হাতির পালটি মেদিনীপুর সদর ব্লকের পলাশিয়া, মণিদহ এলাকায় চাষের ধানে ব্যাপক ক্ষতি করেছে। গ্রামবাসীদের চেষ্টায় শুকনাখালির জঙ্গলে আশ্রয় নিয়েছে হাতির পালটি।
 

77

জমির ফসল ও বাড়িঘর বাঁচাতে বুধবার রাতে মশাল হাতে রাতপাহারা দেন গ্রামবাসীরা। হাতির তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন শালবনী ও মেদিনীপুর সদর ব্লকের চাষিরা। দিনের পর দিন নিজের জমির ফসল নষ্ট হওয়ায় বন দফতরের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন চাষিরা।