বুধবার ঘন কুয়াশায় ঢেকেছে রেল-সড়ক-নদীপথ, দুর্ঘটনা আশঙ্কায় বিঘ্নিত পরিষেবা

First Published Dec 9, 2020, 9:30 AM IST

ঘূর্ণিঝড় বুরেভি কেটে যাওয়ার পর হিমেল বাতাস ঢুকতে শুরু করেছে এ রাজ্যে। আবহাওয়াবিদদের পূর্বাভাস অনুযায়ী উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়ছে ঠান্ডার প্রকোপ। রাত বাড়তেই কুয়াশা পড়তে শুরু করেছে। বুধবার ভোরবেলায় ঘন কুয়াশার চাদরে ঢেকেছে নদিয়া জেলার বিস্তীর্ণ অঞ্চল।  কুয়াশার প্রভাব পড়েছে জাতীয় সড়কে,নদী পারাপারে এমনকি বিঘ্নিত হচ্ছে রেল পরিষেবা। এবার দেখে নেওয়া যাক ছবি।
 

ঘূর্ণিঝড় বুরেভি কেটে যাওয়ার পর হিমেল বাতাস ঢুকতে শুরু করেছে এ রাজ্যে। আবহাওয়াবিদদের পূর্বাভাস অনুযায়ী উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়ছে ঠান্ডার প্রকোপ।

ঘূর্ণিঝড় বুরেভি কেটে যাওয়ার পর হিমেল বাতাস ঢুকতে শুরু করেছে এ রাজ্যে। আবহাওয়াবিদদের পূর্বাভাস অনুযায়ী উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়ছে ঠান্ডার প্রকোপ।

রাত বাড়তেই কুয়াশা পড়তে শুরু করেছে। ভোর বেলায় ঘন কুয়াশার চাদরে ঢেকে পড়ছে নদিয়া জেলার বিস্তীর্ণ অঞ্চল।

রাত বাড়তেই কুয়াশা পড়তে শুরু করেছে। ভোর বেলায় ঘন কুয়াশার চাদরে ঢেকে পড়ছে নদিয়া জেলার বিস্তীর্ণ অঞ্চল।

আর এই কুয়াশার প্রভাব পড়েছে জাতীয় সড়কে,নদী পারাপারে এমনকি বিঘ্নিত হচ্ছে রেল পরিষেবা।

আর এই কুয়াশার প্রভাব পড়েছে জাতীয় সড়কে,নদী পারাপারে এমনকি বিঘ্নিত হচ্ছে রেল পরিষেবা।

জাতীয় সড়কে যানবাহনের গতি কমে গেছে। বাধ্য হয়ে বিভিন্ন গাড়ির চালকদের সকাল পর্যন্ত লাইট জ্বেলে চলতে দেখা আছে। ফেরিঘাট গুলোতে কুয়াশার কারণে প্রায় সময় বন্ধ রাখছেন ঘাট কর্তৃপক্ষ। কুয়াশার কারণে দুর্ঘটনা আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

জাতীয় সড়কে যানবাহনের গতি কমে গেছে। বাধ্য হয়ে বিভিন্ন গাড়ির চালকদের সকাল পর্যন্ত লাইট জ্বেলে চলতে দেখা আছে। ফেরিঘাট গুলোতে কুয়াশার কারণে প্রায় সময় বন্ধ রাখছেন ঘাট কর্তৃপক্ষ। কুয়াশার কারণে দুর্ঘটনা আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

তাই সাবধানী গাড়ির চালক থেকে শুরু করে ফেরিঘাট কর্তৃপক্ষ। শীতের হাত থেকে বাচঁতে রাস্তায় কখনও কখনও আগুন পোহাতে ও দেখা যাচ্ছে এক শ্রেণীর মানুষদের।

তাই সাবধানী গাড়ির চালক থেকে শুরু করে ফেরিঘাট কর্তৃপক্ষ। শীতের হাত থেকে বাচঁতে রাস্তায় কখনও কখনও আগুন পোহাতে ও দেখা যাচ্ছে এক শ্রেণীর মানুষদের।

Today's Poll

একসঙ্গে কতজন প্লেয়ারের সঙ্গে খেলতে পছন্দ করেন