ছুটির দিনে অনকেই দুপুরের খাবারের পর একটু ঘুম পছন্দ করেন। আর দীর্ঘ লকডাউনে অনেকেরই এটা অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে। সাম্প্রতিক এক গবেষণা থেকে জানা গিয়েছে যে, দুপুরে খাবার পরে এক ঘণ্টার বেশি ঘুম হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে। এমনকী এই অভ্যাস মৃত্যুর সম্ভাবনাও বাড়িয়ে তোলে। ইএসসি কংগ্রেস ২০২০ ডিজিটাল এক্সপেরিয়েন্স-এ প্রকাশিত এই গবেষণায় দুপুরে ঘুমনো এবং হৃদরোগ ও মৃত্যুর ঝুঁকির মধ্যে সম্পর্কের বর্ণনা দেওয়া হয়েছে।

এই সমীক্ষা মোট ৩,১৩,৬৫১ জন অংশগ্রহণকারীকে ২০ টিরও বেশি গবেষণায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল, যার মধ্যে প্রায় ৩৯ শতাংশ দুপুরে ঘুমিয়েছিলেন। চিনের গুয়াংজু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার লেখক চিকিৎসক ঝি প্যান বলেছেন, "দিনের বেলায় ঘুমের অভ্যাস প্রায় সারা বিশ্বে প্রচলিত এবং প্রায় সকলেই এটিকে স্বাস্থ্যের জন্য ভাল হিসাবে মনে করে।" তিনি আরও জানিয়েছেন, "এটি সাধারণত মনে করা হয় যে, ঘুমের ফলে কর্মক্ষমতার উন্নতি হয় এবং ঘুমের অভাবজনিত ক্ষতির ফলে সমস্যার সম্মুখীণ হতে হয়। এই দুটি ধারণাই আমাদের গবেষণার মূল চ্যালেঞ্জ ছিল। "

এই গবেষণায় দেখা গিয়েছে যাঁরা দুপুরে ঘুমোয় না, তাঁদের থেকে যাঁরা দুপুরে ৬০ মিনিটের বেশি ঘুমোয়,তাঁদের হৃদরোগ এবং মৃত্যুর ঝুঁকি ৩০ শতাংশ বেশি। আবার যারা রাতে ৮-১০ ঘন্টার বেশি ঘুমোয় তাদের মধ্যেও এই সমস্যা দেখা গিয়েছে। তবে দুপুরে খাওয়ার পর ৬০ মিনিটেরও কম ঘুমানো হৃদরোগের ঝুঁকিপূর্ণ নয়। চিকিৎসক ঝি প্যান জানিয়েছেন, "গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যারা ৩০ থেকে ৪৫ মিনিটের জন্য দুপুরে একটা ন্যাপ নেয় তাঁদের শারীরিক অবস্থা বিশেষ করে হার্টের অবস্থা ভালো থাকে।