লাগাতার বৃষ্টির জেরে কার্যত বিপর্যস্ত মুম্বইয়ের জনজীবন। টানা দু'দিনের ভারী বর্ষণের ফলে শহরের তিন জায়গায় দেওয়াল ধসে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ২০ জনের, আহত হয়েছেন বহু মানুষ।মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে  আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

 

প্রবল বর্ষণের জেরে গভীর রাতে দেওয়াল ধসে গিয়ে মুম্বইয়ের মালাডে মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের। আহত হয়েছেন প্রায় ১১ জন। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে উদ্ধারকার্যে নেমেছেন এনডিআরএফ এবং বৃহন্মুম্বইয়ের বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর। একই ঘটনা ঘটেছে পুনের সিংহগড় ইন্সটিটিউটে। সেখানের পাঁচিল ধসে মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। আহত হয়েছেন অন্তত ৪। দেওয়াল ভেঙে বিপত্তি ঘটেছে মুম্বই-সংলগ্ন কল্যাণে। সেখানে একটি স্কুলের পাঁচিল ভেঙে পড়ে লাগোয়া দুটি বাড়ির ওপর। সেখানেও হতাহতের ঘটনা ঘটেছে বলে খবর। সেখানকার স্থানীয়করা উদ্ধারকার্যে হাত লাগিয়েছেন।

 

এর পাশাপাশি শিবাজীনগরে বিদ্যুৎপৃষ্ঠ হয়ে মারা গিয়েছেন একজন। সোলাপুর এলাকাতে বাজ পড়ে মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। মৃতদের জন্য তিনি ক্ষতিপূরণও ঘোষণা করেছেন। আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর আগামী দু'দিন ধরে জারি থাকবে ভারি বৃষ্টি। এমন পরিস্থিতিতে মহারাষ্ট্রের রাজ্য সরকারের তরফ থেকে সেখানকার স্কুল-কলেজ এবং অফিসেও ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।