মধ্যপ্রদেশের গোরক্ষকদের তান্ডবের ভিডিও ভাইরাল হল সোশ্যাল মিডিয়ায়। মর্মান্তিক সেই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, অন্তত ২৪ জনকে রাস্তায় কান ধরে বসিয়ে রাখা হয়েছে এবং তাঁদের একে অপরের হাত বেঁধে রাখা হয়েছে দড়ি দিয়ে। সেইসঙ্গে তাঁদের ওপর চলছে বেধড়ক মার। এবং তাঁদের দিয়ে জোড় করে বলানো হচ্ছে  'গো মাতার জয়'।

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে আরও দেখা গিয়েছে একব্যক্তি নজর রাখছেন সকলে 'গো মাতার জয়' ধ্বনি দিচ্ছে কি না, অন্যদিকে আর এক ব্যক্তি নজর রাখছে হাত বাধা ওই ব্যক্তিদের ওপর। এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরই নিন্দার ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। জেলা পুলিশ সুপারিটেন্ডেন্ট শিবদয়াল সিং-এর কথায় স্থানীয়দের দাবি, আক্রান্ত ওই ২৪ জন মিলে নাকি মহারাষ্ট্রে গরু পাচার করার চেষ্টা করছিল। সেই কারণেই তাঁদের পথ আটকায় স্থানীয় বাসিন্দারা। বিষয়টি গোরক্ষদের কানে যেতেই সেখানে হাজির হয় ১০০ জনের এক বাহিনী। তাঁরাই ওই ২৪ জনকে গাড়ি থেকে নামিয়ে প্রথমে দড়ি দিয়ে বাঁধেন আর তারপরই শুরু হয় এলোপাথারি মার। 

সূত্রের খবর, ২৪ জনের ওই দল প্রায় ২০টি গবাদি পশু নিয়ে যাচ্ছিলেন মহারাষ্ট্রে একটি পশুর হাটে বিক্রির জন্য। জানা গিয়েছে, এদের মধ্যে অধিকাংশই এসেছেন মধ্যপ্রদেশের খন্দওয়া, সেহোর, দেওয়াস ও হার্দা জেলা থেকে। তাঁদের মধ্যে ছ-জন মুসলমানও ছিলেন বলে খবর। 

প্রসঙ্গত, মধ্যপ্রদেশে গো-সংরক্ষণের জন্য একটি বিল চালু করার কথা রয়েছে। সেই বিলটি পাস হলে গরু পাচারকারীর ৬ মাস থেকে ৫ বছর পর্যন্ত জেল এবং ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হবে জানা গিয়েছে। যদিও গোরক্ষকদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে কোনও শাস্তির ব্যবস্থা নেই।