২৫ বছর বয়সী এক মহিলা অভিযোগ করেছেন গত কয়েক বছর ধরে অন্তত ১৩৯ জন তাঁকে ধর্ষণ করেছেন। এই বিষয়ে গত শুক্রবার পুলিশ একটি মামলাও দায়ের করেছে। চাঞ্চল্যকর এই অভিযোগটি উঠেছে হায়দরাবাদে, যেখানে গত বছরই এক চিকিৎসক তরুণীর গণধর্ষণ নিয়ে সাড়া পড়ে গিয়েছিল গোটা দেশে।

জানা গিয়েছে ২০১০ সালে অভিযোগকারিনীর বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু বিয়ের এক বছরের মধ্যেই স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যার তাঁর। ওই মহিলা অভিযোগ করেছেন, তার প্রাক্তন স্বামীর পরিবারের সদস্যরাও তাঁর যৌন হয়রানি করেছিল। তারপর থেকে গত কয়েক বছরে বিভিন্ন জায়গায় তাকে ১৩৯ জন লোক ক্রমাগত তাঁকে হুমকি দিয়েছে এবং যৌন নির্যাতন করেছে, ধর্ষণ করেছে। এমনটাই ওই মহিলার অভিযোগ। তিনি আরও জানিয়েছেন অভিযুক্তদের হুমকির কারণে ভয় ও আতঙ্কেই তিনি এতদিন পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে পারেননি।

মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে গত শুক্রবার ভারতীয় গণ্ডবিধির প্রাসঙ্গিক আইপিসি ধারায় এবং ওই মহিলা দলিত হওয়ায় এসসি / এসটি অত্যাচার প্রতিরোধ আইনের প্রাসঙ্গিক ধারাতেও একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এফআইআর লেখা হয়েছে ৪২ পাতার। আর ওই মহিলাটিকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এই ভয়ঙ্কর অভিযোগের মামলায় আপাতত তদন্ত শুরু করছে পুঞ্জাগুট্টা থানার পুলিশ।