সংসদের দুই কক্ষেই পাস হওয়ার পর রাষ্ট্রপতির সম্মতি পেলেই বদলে যাবে নাগরিকত্ব আইন। কিন্তু এই মুহূর্তে আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ঠিক কতজন অমুসলিম শরণার্থী এখন ভারতে বসবাস করছেন তার কোনও হিসেব কারোর কাছে নেই। তবে বুধবার রাজ্যসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই হিসেব দিয়েছেন, ২০১৬ থেকে ২০১৮ - তিন বছরে মোট ৩৯১ জন আফগানি এবং ১,৫৯৫ জন পাকিস্তানি শরণার্থীকে ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছে।

আর ২০১৯ সালে ৬ ডিসেম্বর তারিখ পর্যন্ত ভারতের নাগরিকত্ব পেয়েছেন ৪০ জন আফগান এবং ৭১২ জন পাকিস্তানী শরণার্থী। ২০১৬ সাল থেকে ভারতের নাগরিকত্ব পাওয়া শিখ ও হিন্দু শরণার্থীদের সংখ্যা ৯২৭। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরও জানান, ২০১৮ সাল থেকে আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আসা শিখ, হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সী এবং খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের শরণার্থীদের নাগরিকত্বের তথ্য অনলাইনে নথিভুক্ত করার কাজ শুরু করা হয়েছে। সেই অনলাইন তথ্যভান্ডার অনুযায়ীই তিনি এই তথ্য  পেশ করেন রাজ্যসভায়।

তবে নাগরিকত্ব বিলের নয়া সংশোধনী অনুযায়ী কতজন অমুসলিম শরণার্থী ভারতে রয়েছেন তার কোনও তথ্য সরকারের কাছে নেই।  বুধবার রাজ্যসভায় অসমের কংগ্রেস সাংসদ রিপন বোরার প্রশ্নের কোনও সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেননি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কেউই সাহস করে নিজেকে শরণার্থী আখ্যা দিতে না চাওয়ায় এই তথ্য নেই বলে বিষয়টি এড়িয়ে যান তিনি।