ফের রাজধানীতে ঘটল ধর্ষণের ঘটনা। রাজধানী শহর যে মেয়েদের জন্য কতটা অনিরাপদ তা বুঝিয়ে দিয়েছিল নির্ভয়া কান্ড। কিন্তু পুরুষের যৌন লালসার হাত থেকে ছয় বছরের নাবালিকারও যে মুক্তি নেই সেই কথাই প্রমাণিত হল আজ। 

দিল্লিতে যৌন লালসার শিকার হল এক ছয় বছরের শিশু। ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লির দ্বারকা এলাকায়। অভিযোগের তীর ২৪ বছর বয়সী মহম্মদ নাহনে নামে এক যুবকের দিকে। জানা গিয়েছে, ছোট্ট শিশুটিকে একটি নির্জন জায়গায় নিয়ে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় ওই ব্যক্তি। রবি লাল নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা প্রথম ওই নির্জন স্থানে একটা কান্নার শব্দ ভেসে আসতে শোনেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে দে খতে পান ওই নাবালিকা সেখানে অচৈতন্য অব স্থায় পড়ে রয়েছে। তিনিই প্রথম পুলিশকে খবর দেন। তারপর ওই নাবালিকাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয় সফদরজং হাসপাতালে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক। 

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন শিশুটিকে ধর্ষণ করার পর তার যৌনাঙ্গে এমনভাবে আঘাত করা হয়েছ, তাতে ছিঁড়ে গিয়েছে একাধিক শিরা। শিশুটির তলপেটে রয়েছে কামড়ের দাগ, যা থেকে গভীর ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে। তাঁকে সুস্থ করে তুলতে একাধিক অস্ত্রপচার করা হবে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

এই ঘটনার পরেই তদন্তে নামে পুলিশ। সিসিটিভি ফুটেজের হাত ধরে অভিযুক্তের হদিশ পায় পুলিশ। উদ্ধার হওয়া সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি নাবালিকাকে সঙ্গে নিয়ে ওই নির্জন স্থানে প্রবেশ করলেও সেখান থেকে একাই বেরিয়ে আসছে। তদন্ত করে পুলিশ আরও জানতে পেরেছে যে, অভিযুক্ত এবং ওই নাবালিকা একই গ্রামে থাকে। এদিন ওই গ্রাম থেকেই অভিযুক্তকে মদ্যপ অবস্থায় খুঁজে বের করে পুলিশ। জেরার মুখে অপরাধের কথা স্বীকারও করে নেয় সে। 

পৈশাচিক! গায়ে গরম মোম ঢেলে নিগ্রহ করা হল ৩ বছরের শিশুকে

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, যখন ওউ ব্যক্তি তার বাড়িতে এসেছিল তখন শিশুটির বাবা-মা কেউই বাড়িতে ছিল না। আমের সরবত কিনে দেওয়ার নাম করে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তাকে। এই ঘটনার পর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়াল নাবালিকার পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসাবে ১০ লক্ষ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন।