প্রবল বৃষ্টিতে কার্যত বিপর্যস্ত মুম্বই। এর আগেই অবশ্য আবহাওয়া দফতরের তরফ থেকে আগে থেকেই মহারাষ্ট্রের একাধিক জেলায় ভারি থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল। সেইমতো গত কয়েকদিন ধরে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির জেরে বানভাসি মুম্বই শহর। 

আর এরই মধ্যে ডিআরএম সেন্ট্রাল রেলওয়ে সূত্রে খবর, গত শনিবার থেকে প্রবল বৃষ্টিতে মহালক্ষ্মী এক্সপ্রেস-এর আটকে রয়েছে প্রায় ৭০০ যাত্রী। জানা গিয়েছে, শনিবার সকাল থেকে বদলাপুর ও ভাঙ্গানীর মধ্যবর্তী জায়গায় আটকে রয়েছে মহালক্ষ্মী এক্সপ্রেস ট্রেনটি। ন্যাশনাল ডিজাসটার রেসপন্য় ফোর্সের তরফে জানা গিয়েছে, তাঁরা ইতিমধ্যেই উদ্ধারকার্যে অংশ নিয়েছে এবং যাতে যত শীঘ্রই সম্ভব দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছানো যায়, সেই চেষ্টাই চালাচ্ছেন তাঁরা। 

এছাড়াও  ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়েছে রেলওয়ে প্রোটেকশন ফোর্স। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছিল মহালক্ষ্মী এক্সপ্রেসে আটকে থাকতে পারে প্রায় ২০০০ যাত্রী। তবে এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুসারে যাত্রীদের কাছে জল ও শুকনো খাবার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। প্রবল বৃষ্টিপাতে এখনও পর্যন্ত বেশকয়েকটি পথে রেল চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। প্রবল বৃষ্টির ফলে অম্বরনাথ, বদলাপুর ও ভাঙ্গানীর মাঝে উল্লাস নদীর জল বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে খবর।

চলতি মাসের শুরুতে যেভাবে বৃষ্টির কবলে পড়েছিল বাণিজ্য নগরী, তাতে কার্যত নাকাল হয়েছিল সেখানকার মানুষ। তারপর পরিস্থিতি খানিকটা নিয়ন্ত্রণে এলেও ফের শুরু হয় বৃষ্টিপাত। ভারতের  আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী বেশ কয়েকদিনে মধ্য এবং সংলগ্ন দক্ষিণ ভারতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।