এই রাজ্যে ঘাঁটি গাঁড়ছে আলকায়দা জঙ্গিদের দল। এমন হুঁশিয়ারি আগেই দিয়েছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। সেই আশঙ্কাই সত্যি হল। রাজ্য থেকে গ্রেফতার হল ৬ সন্দেহভাজন আল কায়দা জঙ্গি।  শনিবার  সকালে মুর্শিদাবাদের বিভিন্ন জায়গায় হানা দিয়ে ওই ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়। 

এই রাজ্যে বসেই রাজধানী দিল্লিতে বড়সড় নাশকতার ছক চলছিল। এই নিয়ে সতর্ক ছিল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএ। তাই ছক বাস্তবায়িত হওয়ার আগেই  মুর্শিদাবাদ থেকে আন্তর্জাতিক ইসলামি জঙ্গি সংগঠন আল-কায়দার ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করল এনআইএ। এনআইএ সূত্রে খবর, ধৃত ৬ জনকে এদিন দুপুরেই কলকাতার বিশেষ এনআইএ আদালতে পেশ করা হবে।

তবে কেবল এরাজ্য নয়, কেরল থেকেও গ্রেফতার হয়েছে আলকায়দা সংগঠনের আরও ৩ জন। কেরলের এর্নাকুলাম থেকে ওই সন্দেহভাজন ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। বাংলা ও কেরল মিলিয়ে মোট ৯ জনের ওই মডিউল নাশকতার ছক কষেছিল রাজধানী দিল্লিতে । শনিবারেরঅভিযানের পর এমনটাই দাবি করছেন জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএর গোয়েন্দারা।

 

 

জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা বিবৃতি দেয়, 'পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ এবং কেরালার এর্নাকুলামে বেশ কয়েকটি অভিযান চালানো হয়। পশ্চিমবঙ্গ এবং কেরালা-সহ দেশের বেশ কয়েকটি জায়গায় আল-কায়দার আন্তঃরাজ্য সক্রিয় চক্র গড়ে উঠেছে বলে আমাদের কাছে খবর ছিল। দেশে সন্ত্রাসবাদী হামলা চালিয়ে বিভিন্ন জায়গায় নিরীহ মানুষদের মারার পরিকল্পনা করছিল চক্রটি।'

এনআইএ সূত্রে জানা গেছে, মুর্শিদাবাদে সন্দেহভাজন জঙ্গিদের থেকে বিপুল পরিমাণে ডিজিটাল ডিভাইস, তথ্য, জিহাদি পত্রিকা, ধারালো অস্ত্র, দেশী বন্দুক, স্থানীয় ভাবে তৈরি বুলেটপ্র‌ুফ জ্যাকেট এবং বিস্ফোরক বানানোর পদ্ধতি নিয়ে লেখা একাধিক বই পাওয়া গিয়েছে। এরা আর কার কার সঙ্গে যোগাযোগ রাখত  তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গোটা দেশে আর কোথায় কোথায় এই চক্রের জাল আছে তা তদন্ত করে দেখছেন গোয়েন্দা আধিকারিকরা।