আজ থেকে ২৪ বছর আগের কথা। তখনও পৃথিবীতে নতুন করোনাভাইরাস (সার্স-কোভ-২) কেন, তার পূর্বপুরুষ সার্স-এর নাম-ও শোনেনি। সেইসময়ই বাবা তাঁর নাম রেখেছিলেন করোনা। ২৪ বছর পর সেই করোনা দেবীই করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। গর্ভে তখন তাঁর সন্তান। সকলেই উদ্বেগে ছিলেন। কিন্তু সব ভয় কাটিয়ে শুক্রবার ভোর ২.৩০ মিনিটে একটি সুস্থ কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন তিনি।  

'করোনা' কথাটি ল্যাটিন, অর্থ মুকুট। করোনাভাইরাস বংশের ভাইরাসগুলির গায়ে মুকুটের মতো কাঁটা কাঁটা থাকে বলে নাম রাখা হয়েছিল করোনাভাইরাস। বিশ্বজুড়ে এই মহামারি ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই সংবাদমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়া এই ভাইরাসটির সঙ্গে নামের মিল রয়েছে এমন লোকজনদের নিয়ে বিভিন্ন সংবাদ পরিবেশন করতে শুরু করেছে। শুধু তাই নয়, আত্মীয় পরিজন বা পাড়ার লোকজনও তাঁদের নাম নিয়ে হাসিঠাট্টা করছেন। এমনকী বাংলায় যাঁদের নাম করুণা,তাঁরাও ছাড় পাচ্ছেন না। এরমধ্যেই কেরলের করোনা দেবীর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর এসেছিল।

২৪ বছর আগে কেরলের কোল্লাম জেলার কদাভুর মাথিলিল কাট্টুবিলা হাউস এলাকার বাসিন্দা টমাস নামে এক শিল্পী তার যমজ বাচ্চার নাম রেখেছিলেন কোরাল এবং করোনা। ছেলের নাম রেখেছিলেন কোরাল এবং তার সঙ্গে ছন্দ মিলিয়েই মেয়ের নাম রেখেছিলেন 'করোনা'। প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পর করোনা-র বিয়ে হয়েছিল জিনু নামে এক এনআরআই ব্যবসায়ীর সঙ্গে। তাদের একটি ছেলেও রয়েছে। এতদিন কোনও অসুবিধা না হলেও কোভিড মহামারির পর থেকেই তাঁকে নিয়ে সংবাদমাধ্যম থেকে পাড়া প্রতিবেশী মাতামাতি শুরু করে দিয়েছে। লোকমুখে তার নামটি এখন ছড়িয়ে পড়েছে চলতি মহামারির মতোই, বলে এশিয়ানেট নিউজকে জানিয়েছে তাঁর বাবা টমাস।

বিশেষ করে তিনি করোনা আক্রান্ত হোয়ার পর তো আরও বেশি। চলতি মাসের ২৪ তারিখ তাঁর প্রসবের তারিখ নির্ধারণ করেছিলেন ডাক্তাররা। তবে, হঠাতই তাঁর শরীরে কোভিড-১৯-এর বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দেয়। স্বাভাবিকভাবেই তাঁর কোভিড পরীক্ষা করা হয়। আর তাতেই ধরা পড়ে, তিনি পজিটিভ। এরপর তাঁকে পারিপল্লি মেডিকেল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। শুক্রবার রাত আড়াইটায় একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জন্ম দেন করোনা। তবে করোনা সংক্রমণ থেকে এখনও মুক্তি পাননি তিনি। তার জন্য আরও কয়েকদিন তাঁকে পারিপল্লি মেডিকেল কলেজে ভর্তি থাকতে হবে।

করোনার বাবা টমাস জানিয়েছেন, '২৪ বছর আগে যখন ওর নাম রেখেছিলাম, তখন আমি ভাবিনি ওর নামটা কখনও মিডিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারে। আমি শুধুমাত্র ছেলের কোরাল-এর নাম-এর সঙ্গে নাম মিলিয়ে মেয়ের নাম রাখতে চেষ্টা করছিলাম।'