প্রেমিক সম্পর্কে তাঁর দূর সম্পর্কের কাকা। কোনওভাবেই এই সম্পর্ক মানতে রাজি ছিল না পরিবার। আর তাই অভিমানে নিজের গায়ে আগুন দিলেন বছর আঠেরোর কিশোরী। ঘটনাস্থল যোগীরাজ্য উত্তরপ্রদেশ।

৯০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে ওই তরুণীর। কানপুর হাসপাতালে এখন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে সে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে  ২৫ বছরের এক যুবকের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল কিশোরীর। তাকে বিয়ে করতে চান বলে পরিবারকে জানিয়েছিলেন কিশোরী। কিন্তু যুবক তাদের দূর সম্পর্কের আত্মীয় হওয়ায় তা মানতে কোনওভাবেই রাজি ছিল না পরিবার। 

স্থানীয় পঞ্চায়েতেও তোলা হয়েছিল বিষয়টি। তাতে রায় দেওয়া হয়, কিশোরীর বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত ওই যুবককেক গ্রাম ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে হবে। এরপরেই  বাড়ি গিয়ে নিজেকে জ্বালিয়ে দেন কিশোরী, এমনটাই জানা যাচ্ছে হুসেইনগঞ্জ পুলিশ স্টেশন সূত্রে। 

কিশোরীর কান্নার আওয়াজ পেয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রতিবেশীরা, সেখান থেকে প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। পরে কানপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অষ্টাদশীকে।

এদিকে ওই দূর সম্পর্কের আত্মীয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন কিশোরীর ভাই। সেই কারণেই অষ্টাদশী নিজেকে জ্বালিয়ে দিয়েছে বলে পুলিশের কাছে দাবি করেন তিনি। এক কিছুক্ষণ পরেই বয়ান বদল করে ভাই দাবি করেন, কিশোরীর গায়ে আগুন দেন তার প্রেমিক নিজেই। কিশোরীর বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে ওই দূর সম্পর্কের আত্মীয়ের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।