একে একে হাতছাড়া  হয়েছে মহারাষ্ট্র, ঝাড়খণ্ড। দিল্লিতেও চিড়ে ভিজবে না বিজেপির। ফের বিপুল সংখ্য়াগরিষ্ঠতা নিয়ে আসতে চলেছে আম আদমির সরকার। তেমনই ইঙ্গিত দিয়েছে জনমত সমীক্ষা। এবিপি নিউজ, সি-ভোটারের দিল্লি সমীক্ষা বলছে, ৭০ আসনের দিল্লি বিধানসভায় আম আদমি পার্টি একাই পেতে পারে ৫৯টি আসন।

অন্যদিকে, বিজেপি দশটি আসনও ছুঁতে পারবে না। ৮টি আসনেই থেমে যেতে পারে গেরুয়া শিবির। কংগ্রেসের ভাগ্য়ে জুটতে পারে মাত্র তিনটি আসন। প্রধান বিরোধী দল হিসাবে যা বিজেপিকে একেবারে কোণঠাসা করে দিয়েছে। সি-ভোটারের সমীক্ষা বলছে, দিল্লিতে আম আদমি পার্টি পেতে পারে ৫৪ থেকে ৬৪ আসন। মাঝামাঝি সংখ্যা ধরলে দাঁড়ায় ৫৯। 

সেই একই হিসেবে  বিজেপি পেতে পারে ৩-১৩ টি আসন। মাঝামাঝি  সংখ্য়া ধরলে দাঁড়ায় ৮। কংগ্রেস পেতে পারে ০-৬টি আসন। শুধু আসনের দিক থেকেই নয়, ভোট শতাংশের বিচারেও বিজেপির থেকে অনেক এগিয়ে কেজরিওয়ালের দল। সি-ভোটার সমীক্ষা বলছে, আম আদমি পার্টি পেতে পারে প্রায় ৫৪ শতাংশ ভোট। অন্যদিকে, বিজেপি পেতে পারে ২৬ শতাংশ ভোট। কংগ্রেস পেতে পারে সব মিলিয়ে ৫ শতাংশ ভোট।

সমীক্ষা বলছে, দিল্লিতে কাজের নিরিখে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে অরবিন্দ কেজরিওয়ালকেই প্রথম পছন্দ বলছে সবাই। ৭০ শতাংশ দিল্লিবাসী কেজরিওয়ালকেই ভোট দিয়েছেন। দ্বিতীয় পছন্দ হিসেবে দিল্লিবাসী বেছে নিয়েছে বিজেপির হর্ষ বর্ধন এবং কংগ্রেসের অজয় মাকেনকে। সবথেকে অবাক করার বিষয়, ভোজপুরি সিনেমার হিরো মনোজ তিওয়ারিকে সমীক্ষায় মাত্র ১ শতাংশ মানুষ পছ্ন্দ করেছেন। দিল্লিতে  বিজেপি সভাপতি হিসাবে বহুদিন ধরেই কাজ করে চলেছেন মনোজ। জানুযারির প্রথম সপ্তাহের এই সমীক্ষাটি প্রকাশ হতেই মুখে হাসি ফুটেছে আপ শিবিরের।

পরিসংখ্য়ান বলছে, গত বিধানসভা নির্বাচনে ৭০ আসনের দিল্লি বিধানসভায় আম আদমি পার্টি একাই পেয়েছিল ৬৭টি আসন। বিজেপি পেয়েছিল ৩টি আসন। কংগ্রেস কোনও আসন পায়নি। এ বছর কেজরিওয়ালকে গদিচ্যুত করতে উঠেপড়ে লেগেছে বিজেপি। ইতিমধ্য়েই দিল্লিতে আপ-এর সরকারকে 'আধি অধুরি সরকার' বলে প্রচার শুরু করেচে তাঁরা। টিভিতে , সোশ্য়াল  মিডিয়ায় ছেয়ে গিয়েছে বিজেপির সেই প্রচার ভিডিয়ো। যেখানে কেজরিওয়ালের সরকার সব  কাজ অর্ধেক করে বলে অভিযোগ করেছে বিজেপি। তবে বিজেপির এই বার্তা দেখে মুচকি হাসি হাসছে আম আদমি পার্টির নেতারা। কেউ প্রশ্ন করলে বলছেন, কমপক্ষে আমরা অর্ধেক কাজ করেছি তা মেনে নিচ্ছে বিজেপি। তাই আরও পাঁচ বছর দিন, অর্ধেক কাজ পূর্ণ করার জন্য।