প্রবল তুষারপাতে কারণে আটকে পড়া প্রায় ৩০০ পর্যটকরে উদ্ধার করা হয়েছে। স্থানীয় প্রশালন জানিয়েছে, পর্যটকরা অটল ট্যালেন সংলগ্ন এলাকায় রোটাং পাসের দিকে আটকে পড়েছিলেন। প্রায় প্রত্যেক পর্যটকই লাহুল স্পীতি ভ্যালির দিকেই যাচ্ছিলেন। কিন্তু শনিবার ওই এলাকায় প্রবল তুষারপাত হয়। আর সেই কারণেই প্রচুর পর্যটক আটকে পড়েছিলেন। অটল টানেল সংলগ্ন এলাকায়। প্রশাসন সূত্রে জানান হয়েছে, শনিবারই অনেক যাত্রীবাহী গাড়ি শনিবার অটল টানেল পার হয়েছিলেন। কিন্তু প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের জন্য অনেকেই নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছাতে পারেননি। আটকে থাকা গাড়িগুলির মধ্যে একটি ট্যাক্সি ও ৪৮ আসনের বাসই ছিল। সবকটি গাড়ি নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে। সবমিলিয়ে ৭০টি গাড়ি উদ্ধার করা হয়েছে। 

লাহুল স্পিতির পুলিশ ও মানালি পুলিশের যৌথ উদ্যোগেই এই অপারেশন চালান হয়েছে। এই যথেষ্ট ঝুঁকি নিয়েই উদ্ধারকাজ চালান হয়েছে। কারণ প্রবল তুষারপাতের কারণে রাস্তার অনেকটাই বন্ধ ছিল। আর রাস্তাও যথেষ্ট পিছল ছিল। পাহাড়ী রাস্তায় প্রায় জীবন হাতে করেই উদ্ধার করা হয়েছে ৩০০ যাত্রীকে। শনিবার রাত থেকে উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছিল। উদ্ধারকাজ শেষ হতে হতে মধ্যরাত হয়ে যায়। উদ্ধারের পরেই রাস্তায় টহল দেওয়া হয় কোনও পর্যটক ওই রাস্তায় আটকে রয়েছে কিনা তা দেখার জন্য়। 

আবহাওয়া দফতরের কথায় আগামীদিনে অটল টানেল সংলগ্ন এলাকায় আরও বেশি তুষারপাত হবে। ৮ জানুয়ারি পর্যন্ত আবহাওয়া খারাপ থাকবে বলেও সতর্ক করা হয়েছে। গত অক্টোবরেই অটল টানেলের উদ্ধোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তারপর থেকেই অটল টানেল নিয়ে প্রবল উৎসাহ পর্যটকদের। আর শীতকালে অটল টানেল ও তুষারপাত একই সঙ্গে দেখতে পর্যটকদের ভিড় আরও বাড়ছে বলেও মনে করছেন স্থানীয়রা।