চিনের উহানে আটকে থাকা ভারতীয় ছাত্রদের উদ্ধারে শুক্রবার দিল্লি থেকে চিনে উড়ে গিয়েছিল এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিশেষ বিমান। শনিবার ভোরে ৩২৪ জন ভারতীয় পড়ুয়াকে নিয়ে দেশে ফিরল সেই বিমান।

 

৩২৪ জন ভারতীয় পড়ুয়ারা দিল্লি বিমানবন্দের এসে পৌঁছতেই তাঁদের শারীরিক পরীক্ষা করা হয়। সেজন্য চিকিৎসকদের একটি বিশেষ দল রাখা হয়েছিল দিল্লি বিমানবন্দরে। এদের মধ্যে কারও শরীরের করোনা ভাইরাস পাওয়া গেলে তাদের চিকিৎসা পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। রোগ যাতে না ছড়িয়ে পড়ে সেজন্য হিরয়ানার মানেসরে চিন থেকে আসা ভারতীয়দের জন্য বিশেষ থাকার ব্যবস্থা করেছে ভারতীয় সেনা। সেখানে কাদের তত্ত্বাবধানে নিয়োজিক থাকবেন ভারতীয় চিকিৎসক ও নার্সের দল। আগামী কয়েক সপ্তাহ সেনার পর্যবেক্ষণে থআকতে হতে পারে চিন থেকে আসা এই ভারতীয় পড়ুয়াদের। 

 

ভারতীয় ছাত্রদের দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে চিন সহযোগিতা করায় ট্যুইটারে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দেশের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। এদিকে আটকে পড়া ভারতীয়দের ফেরাতে চিনে এয়ার ইন্ডিয়ার আরও একটি বিমান পাঠান হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। তবে এবিষয়ে এখনও কোনও স্পষ্ট খবর পাওয়া যায়নি।

 

এদিকে চিনে ক্রমেই ভয়াবহ আকার নিচ্ছে মারণ করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে চিনা ভূখণ্ডের সর্বত্র। এখনও পর্যন্ত চিনে সরকারি ভাবে করোনার বলি হয়েছেন ২৫৯ জন। এদির মধ্যে অধিকাংশই উহানের বাসিন্দা। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। বর্তমানে চিনে সরকারি ভাবে কোরানায় আক্রান্তের সংখ্যা ১১,৭৯১।