Asianet News BanglaAsianet News Bangla

অটল টানেল নিয়ে রাজনীতির পারদ চড়ছে, ১৫ দিন সময়সীমা বাঁধল কংগ্রেস

  • অটল টানেল নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনীতি 
  • সনিয়ার স্থাপন করা ভিত্তি প্রস্তর গায়েব 
  • পুলিশের দ্বারস্থ কংগ্রেস নেতা কর্মীরা 
  • ফলক খুঁজতে দেওয়া হয়েছে ১৫ দিন সময় 
alat tunnel congress files fir over missing  foundation stone laid by Sonia Gandhi bsm
Author
Kolkata, First Published Oct 13, 2020, 12:15 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

অটল টানেল নিয়ে শুরু হয়ে গেল রাজনীতি। আসরে নেমেছে হিমাচল প্রদেশের  কংগ্রেস নেতা কর্মীরা। তাদের অভিযোগ সভানেত্রী সনিয়া গান্ধীর স্থাপন করা ভিত্তি প্রস্তরটি নিখোঁজ হয়ে গেছে। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্তের দাবি জানিয়েছে হিমাচল প্রদেশের কংগ্রেস নেতা গিয়ানচেন ঠাকুর কিলং ও মানালি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে চিঠি লেখা হয়েছে হিমালচ প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুরকেও। 


২০১০ সালে অটল টানেলের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়েছিল। সেই সময় ইউপিএ চেয়ারপার্সেন হিসেবেই ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছিলেন কংগ্রেসের সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী। অটল টানেলের দক্ষিণ মুখে অবস্থিত মানালিতে এই ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়েছিল।  দীর্ঘ দিন ধরেই সেটি অক্ষত ছিল। গত ৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অটল টানেলের যান চলাচলের সূচনা করেন। কিন্তু তারপর থেকেই সোনিয়া গান্ধীর স্থাপন করা ভিত্তি প্রস্তরটি গায়েব হয়ে যায়। 

কংগ্রেস নেতৃত্বের অভিযোগ রাজনৈতিক স্বার্থ পুরণ করতেই  সরিয়ে দেওয়া হয়েছে সনিয়া গান্ধীর স্থাপন করা ভিত্তি প্রস্তর। আর এই ঘটনায় স্থানীয় বিজেপি নেতা কর্মীদের হাত রয়েছে বলেও অভিযোগ করা হয়েছে। কংগ্রেসের দুই নেতার অভিযোগ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অটল টানেল উদ্বোধন করার পর তাঁরা সনিয়া গান্ধীর স্থাপন করা ভিত্তি প্রস্তরটি খুঁজেতে গিয়েছিলেন। বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে খোঁজখবর চালিয়েছেন কিন্তু তাঁরা। কোনও সন্ধান পাননি। সনিয়া গান্ধীর হাতে যে অটল টালেনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন হয়েছিল সেই প্রমাণ লোপাটের জন্যই তা সরিয়ে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পাশাপাশি কংগ্রেসের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে এভাবে ভিত্তি প্রস্তর সরিয়ে ফেলা পুরোপুরি অবৈধ। একই সঙ্গে ভিত্তি প্রস্তরটি খুঁজে বার করার জন্য মাত্র ১৫ দিন সময় বেঁধে দেওয়াও হয়েছে। বলা হয়েছে ১৫ দিনের মধ্যে ফলকটি আগের অবস্থানে ফিরিয়ে না দেওয়া হলে বড়সড় আন্দোলনের পথে যাবে কংগ্রেস। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios