গত বৃহস্পতিবারই কাশ্মীর ভ্রমণে পর্যটকদের উপর জারি করা নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে। এবার ভূস্বর্গকে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরাতে আরও একধাপ এগোল প্রশাসন। আগামী সোমবার থেকেই জম্মু-কাশ্মীরে চালু হয়ে যাচ্ছে পোস্টপেড মোবাইল পরিষেবা। জানালেন জম্মু-কাশ্মীরের মুখ্য সচিব রোহিত কানসাল। পাশাপাশি উপত্যকার ৯৯ শতাংশ এলাকায় কড়াকড়ি শিথিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কানসাল। 

উপত্যকার ১০টি জেলায় আগামী সোমবার দুপুর ১২টা থেকে মোবাইল পরিষেবা চালু হবে। যে কোনও সার্ভিস প্রোভাইডরের মোবাইল নেটওয়ার্ক কাজ করবে উপত্যকায়।

এদিকে স্বাভাবিক জনজীবনে ফেরার বার্তা দিয়ে জম্মু-কাশ্মীরবাসীর উদ্দেশে এই প্রথম সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন ছাপালো প্রশাসন। গত ৫ অগস্ট ৩৭০ ধারা বাতিল করা হয় কাশ্মীরে। তারপর থেকেই নিরাপত্তার ঘেরাটোপে রয়েছে ভূস্বর্গ। অপ্রীতিকর পরিস্থিত এড়াতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবাও। 

২ মাসেরও বেশি সময় ধরে সমস্ত রকম যোগাযোগ মাধ্যম থেকে বিচ্ছিন্ন ছিল উপত্যকা। উপত্যকায় ৬৬ লক্ষ মোবাইল উপভোক্তার মধ্যে ৪০ লক্ষ গ্রাহক পোস্টপেড পরিষেবা ব্যবহার করেন। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, জম্মু-কাশ্মীরে পোস্টপেড মোবাইল পরিষেবা শুরু হলেও ইস্টারনেট পরিষেবা শুরু হতে এখনও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। প্রাথমিক ভাবে পোস্টপেড মোবাইল শুরু হলেও খুব শীঘ্রই প্রিপেড মোবাইল সার্ভিসও শুরু করা হবে। 

গত ১০ অক্টোবর পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে কাশ্মীরের দরজা। এরপরই পর্যটন সংস্থাগুলি প্রশাসনের কাছে মোবাইল পরিষেবায় নিষেধাক্ষা তুলে নেওয়ার আর্জি জানান। গত  ৫ অগস্ট জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করার পর থেকে উপত্যকায় সম্পূর্ণ বন্ধ ছিল ফোন পরিষেবা ৷ সেপ্টেম্বরের ৪ তারিখ থেকে আংশিকভাবে ৫০ হাজার ল্যান্ডলাইন ফোনে পরিষেবা চালু করা হয় ৷