ছেড়ে খেলা তাঁর ধাতে নেই। সে রাজনীতি হোক বা ঘুড়ি ওড়ানো। তিনি যে টেনেই খেলতে ভালোবাসেন তা আরও একবার দেখিয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

মঙ্গলবার উত্তরায়ন উপলক্ষ্যে গুজরাতের আহমেদাবাদে বিশাল ঘুড়ি ওড়ানোর প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানেই এদিন বিকেলে বেশ কিছুটা সময় কাটালেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে। শুধু প্রধান অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে আসা নয়, একটি বহুতল বাড়ির ছাদে উঠে রীতিমতো হাতে তুলে নিলেন ঘুড়ির সুতো। সেই সময় আশপাশের বাড়িগুলির ছাদ মানুষের চাপে প্রায় ভেঙে পড়ার দশা। এমনিতেই ঘুড়ি উৎসবের মজা, তার উপর চোখের সামনে অমিত শাহকে ঘুড়ি ওড়াতে দেখা - দর্শকদের উৎসাহ তখন দ্বিগুণ।

ঘুড়ি ওড়াতে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যেন ফিরে গেলেন সেই ছেলেবেলার দিনগুলিতে। আকাশে উড়ছে তাঁর ঘুড়ি, পাল্লা দিচ্ছে আশপাশের ছাদ থেকে ওড়া আরও কয়েকটি ঘুড়ি। অমিত শাহ-এর মুখ দেখে তখন কে বলবে তাঁর উপর দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষার গুরুভার রয়েছে। বিজেপি-র মতো বিশ্বের সর্ববৃহৎ দলের লাটাই-ও তাঁর হাতে। সেই সময় তাঁর চোখে মুছে কিশোর বয়সের উত্তেজনা।

মোটেই সুতো ছেড়ে  খেলার দিকে গেলেন না তিনি। প্রবল বেগে মাড়লেন সুতোয় টান। আর তাতেই প্রতিপক্ষের ঘুড়ি একেবারে ভোকাট্টা। চারিদিক থেকে আওয়াজ-ও উঠল ভোক্কাটা।  

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই ঘুড়ি ওড়ানোর ছবি-ভিডিও দেখে নেটিজেনদের অনেকেই বলছেন, এভাবে সুতোর টানেই তিনি রাজনৈতিক বিরোধীদের সকলের ঘুড়ি কেটে দেবেন। আপাতত সিএএ নিয়ে দেশজোড়া বিতর্ক থাকলেও অমিত শাহ-কে রোখা যাবে না। তিনি সুতো ছেড়ে খেলার বান্দাই নন।