শুধু অসম নয়, সারা দেশেই চালু হবে এনআরসি। দেশের প্রতি ইঞ্চি থেকে বেআইনি শরণার্থীদের খুঁজে বের করবে কেন্দ্র। আর তারপর আন্তর্জাতিক আইন মেনে তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে। বুধবার রাজ্যসভায় সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জাভেদ আলি খানের এক প্রশ্নের উত্তরে সারা দেশে জাতীয় নাগরিকপঞ্জী তৈরি ও প্রয়োগের বিষয়টি পরিষ্কার করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

এদিন তিনি সমাজবাদী পার্টির ওই নেতার প্রশ্নের জবাবে বলেন, এনআরসি অসম অ্যাকর্ডের অংশ। বিজেপিও তাদের ম্যানিফেস্টোতে এনআরসি চালুর প্রতিশ্রুতি দিয়েই ক্ষমতায় ফিরেছে। 'দেশের মাটির প্রতি ইঞ্চি' থেকে বেআইনি অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করে তাদের নিজদেশে ফেরত পাঠানো হবে।

এর আগে প্রথমবার অসমে যে জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর তালিকা তৈরি করা হয়েছিল, সেখান বহু মানুষের নাম বাদ গিয়েছিল। আবার বেশ কিছু ভুল নামও ঢুকে গিয়েছিল। ফলে সুপ্রিম কোর্টের অধীনে এই তালিকা সংশোধনের কাজ চলছে। আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্য়ে এই কাজ শেষ করার কথা।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই জানিয়েছেন, প্রায় ২৫ লক্ষ মানুষ কেন্দ্রীয় সরকার ও রাষ্ট্রপতির কাছে এই বুল সংশোঝনের সময়সীমা বাড়ানোর জন্য আবেদন করেছেন। সেইমতো সরকারও সুপ্রিম কোর্টের কাছে এই সময় বাড়ানোর জন্য আবেদন করেছে। রাই জানিয়েছেন, তাবলিকা তৈরিতে একটু সময় লাগলেও একেবারে নিখুঁত করে সেই তালিকা তৈরি করা হবে।