২০১৪ সালে মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই অসমে এনআরসি প্রকাশ করে অবৈধ নাগরিকদের চিহ্নিত করতে চেয়েছিল বিজেপি। এনআরসি তৈরির লক্ষ্যই ছিল বিদেশীদের চিহ্নিত করা। কিন্তু শনিবার অসমের বিজেপি সরকারের মন্ত্রী তথা রাজ্যের অন্যতম বড় নেতা হিমন্ত শর্মা সরাসরি জানালেন এই এনআরসি নিয়ে তাঁরা হতাশ, আর আগ্রহ নেই এই বিষয়ে। তাঁর মতে বিদেশী নাগরিকদের চিহ্নিত করতে অন্য রাস্তা চাই।

মোট ১৯ লক্ষ আবেদনকারী বাদ পড়েছেন নাগরিকপঞ্জীর চুড়ান্ত তালিকা থেকে। হিমন্ত শর্মার দাবি খসড়াতেই দেখা গিয়েছে এর মধ্য়ে বেশ কিছু বৈধ ভারতীয়ের নাম বাদ পড়েছে তালিকা থেকে। তাঁর দাবি, বাংলাদেশ সীমান্তের নিকটবর্তী জেলা ধুবরি থেকে আবেদনকারীদের সংখ্যা কম। অথচ সেই জেলাতেই বাংলাদেশ থেকে আসা অবৈধ নাগরিকদের সংখ্যা বেশি হওয়ার কথা। পাশাপাশি ভূমিপুত্র জেলায় যেখানে অবৈধ নাগরিকের সংখ্যা কম হওয়ার কথা, সেখান থেকেই তালিকাছুটের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

এই কারণেই এনআরসি নিয়ে আগ্রহ হারিয়েছেন তাঁরা বলে জানিয়েছেন অসমের এই বিজেপি নেতা। তিনি আরো বলেন এই নাগরিকপঞ্জী দিয়ে বিদেশীদের চিহ্নিত করা সম্ভব নয়। বিদেশী নাগরিকদের রাজ্য থেকে বিতারণের জন্য দিসপুর ও দিল্লিতে ইতিমধ্য়েই নতুন পন্থার খোঁজ শুরু হয়ে গিয়েছেন হিমন্ত শর্মা।