ফের কুকথার ফুলঝুড়ি ছুটল উত্তরপ্রদেশের সপা নেতা আজম খানের মুখে। এবার একেবারে লোকসভায় দাঁড়িয়ে স্পিকারের চেয়ারে থাকা বিজেপি নেত্রী রমা দেবীর উদ্দেশ্যে খারাপ মন্তব্য করলেন এই বিতর্কিত সপা নেতা। যার জেরে জাতীয় মহিলা কমিশন তাঁকে লোকসভা থেকে সাসপেন্ড করার দাবি তুলল।

এদিন তিন তালাক বিল নিয়ে বিতর্ক চলার সময়ে আজম খান বলতে ওঠেন। সেই সময় বিভিন্ন বিজেপি নেতা তাঁকে নানা ভাবে বাধা দিতে থাকেন। একসময় স্পিকারের আসনে থাকা বিজেপি সাংসদ রমা দেবী তাঁকে বলেন অন্যদিকে দৃষ্টিপাত না করে তাঁর দিকেই তাকিয়ে বক্তব্য পেশ করতে। তার জবাবে আজম খান বলে বসেন, রমা দেবী এত সুন্দরী যে তাঁর তো চোখ ফেরাতেই ইচ্ছে করে না।

এরপরই লোকসভায় তুমুল হইহট্টোগোল শুরু হয়ে যায়। ড্যামেজ কন্ট্রোলের জন্য খান পরে বলেন, রমাদেবী তাঁর বোনের মতো। কিন্তু ততক্ষণে যা ক্ষতি হওয়ার হয়ে গিয়েছে। বিজেপি সাংসদরা স্পিকারের আসনের অপমান হয়েছে দাবি করে তাঁকে ক্ষমা চাইতে বলে। আজম খান অবশ্য বলেন, তিনি সংসদবিরোধী কিছু বহলে  থাকলে পদত্যাগ করবেন। তাঁকে সমর্থন করেন সপা নেতা অখিলেশ যাদবও।

কিন্তু, বিষয়টি লোকসভা কক্ষের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেনি। পরে জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা আজম খানের মন্তব্যের সমালোচনা করে, সংসদ থেকে তাঁকে সাসপেন্ড করার দাবি করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, যেহেতু কক্ষের ভিতরে মন্তব্য করেছেন, তাই মহিলা কমিশন এই বিষয়ে কোনও ব্যবস্থা নিতে অপারক।