ফের ভারসাম্য হারালেন বাবা রামদেব। হাতির পিঠে যোগব্যায়াম করতে গিয়ে হুড়মুড়িয়ে পড়ে গেলেন সোজা মাটিতে। সোমবার তিনি মথুরায় গুরু শরণানন্দের আশ্রম রমণ রেতিতে সেখানকার সাধুদের যোগাভ্যাস শেখাচ্ছিলেন। সেইসময়ই ওই বিপত্তি ঘটে বলে জানা গিয়েছে। ঘটনার ২২ সেকেন্ডের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

সেই ভিডিও ক্লিপে দেখা যাচ্ছে, বাবা রামদেব একটি যোগাসন করতে করতে হাতির পিঠে বসে আছেন। ভিডিওটি কয়েক সেকেন্ড চলার পরই দেখা হাতিটি একটু নড়াচড়া করে উঠতেই রামদেবের ভারসাম্য টলে যায়, আর তিনি হাতির পিঠ থেকে সোজা মাটিতে পড়ে যান। রামদেবের পিঠ সজোরে গিয়ে আঘাত করে মাটিতে। অন্য কেউ হলে হয়তো পিঠের ব্যথায় উঠতেই পারত না। কিন্তু, যোগগুরু বলে কথা! মাটিতে পড়ে গিয়েই তাঁকে দেখা যায় মুহূর্তে হাসতে হাসতে উঠে দাঁড়াতে।

ভিডিওটি টুইটারে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে। একটা বড় অংশ রামদেবের এই পতনের ভিডিও নিয়ে হাসাহাসি করছে। কেউ মনে করিয়ে দিয়েছেন, রামদেব বলেছিলেন নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর দুর্নীতির পতন ঘটবে। কেউ আবার বলেছেন, রামদেব আত্মসন্তুষ্টিতে ভুগছিলেন। কেউ আবার বলেছেন ভারতে জিডিপির পর বাবা রামদেবই ধারাবাহিকভাবে পতনশীল। প্রথমে মঞ্চ, তারপর সাইকেল, আর তারপর এখন হাতির পিঠ থেকে পড়ে গেলেন। গত অগাস্ট মাসেই বাবা রামদেবকে বৃষ্টিভেজা রাস্তায় সাইকেল চালাতে গিয়ে ভারসাম্য হাড়িয়ে পড়ে যেতে দেখা গিয়েছিল। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিওটিও ভাইরাল হয়েছিল।

আবার, কেউ কেউ বাবা রামদেবের চটপটে ভাবের প্রশংসা করেছেন।  জানিয়েছেন যে দ্রুততায় তিনি উঠে দাঁড়িয়েছেন, তা শুধু তাঁর পক্ষেই সম্ভব। কেউ বলেছেন, ছোটদের মতো উত্সাহ উদ্দিপনায় ফোটেন রামদেব। আর একজন বলেছেন তিনি মোটেই পড়ে যাননি, আসলে তিনি লাফ দিয়েছিলেন।

বাবা রামদেব কি পড়েই গেলেন, না তিনি লাফ দিয়েছিলেন? ভিডিওটি দেখে বিচার করুন।