নিত্যনতুন কায়দায় যেমন দাড়ি কাটা অনেকের শখ, তেমনি গোঁফ নিয়েও পুরুষদের শখ কিছু কম নয়। এমন অনেকেই রয়েছেন যাঁরা গোঁফ দিয়েই নিজের পরিচিতি তৈরি করতে ভালবাসেন। আর কেউ যদি তাঁর এই সাধের গোঁফখানির দিকে এতটুকু নজর দেন তাতেই রাগ হয়ে যায় তাঁদের।

সম্প্রতি এই গোঁফ নিয়েই এক অদ্ভুত ঘটনা ঘটেছে নাগপুরে। কিরণ ঠাকুর নামে পঁয়ত্রিশ বছর বয়সী এক ব্যক্তি নাগপুর পুলিশ স্টেশনে এক নাপিতের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তাঁর দাবি, কানহান এলাকায় সুনিল লাকসানে নামে এক নাপিতের কাছে চুল দাড়ি কাটতে গেলে সেই নাপিত তাঁকে জিজ্ঞাসা না করেই তার গোঁফ কেটে দিয়েছে বলে অভিযোগ। আর এতেই বেজায় চটে যান কিরণ। আর সেই কারণেই নাপিত সুনিল লাকসানে তাঁকে অশ্রাব্য ভাষায় হুমকি দিতে শুরু করেন। আর এরপরই তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানান কিরণ ঠাকুর। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে ওই নাপিতের বিরুদ্ধে  জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। 

আর এর প্রতিবাদে গর্জে ওঠে সেখানকার নাপিত সংগঠন। এদিন নাপিতদের 'নাভিক একতা মঞ্চ' নামে একটি সংগঠনের পক্ষ থেকে কিরণ ঠাকুরকে বয়কট করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তাঁদের দাবি ভবিষ্যতে ওই ব্যক্তিতে আর কোনও রকম পরিষেবা দেবে না তাঁরা। 'নাভিক একতা মঞ্চ-এর সভাপতি জানিয়েছেন তাঁদের সহকর্মীর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সম্পূর্ণরূপেই ভিত্তিহীন এবং তাঁরা গোঁফ কাটার আগে ওই ব্যক্তির সম্মতি নিয়েই গোঁফ কেটেছিল।