বৃহস্পতিবার, কেন্দ্রের বিতর্কিত কৃষি আইন নিয়ে আলোচনায় মধ্যস্থতার জন্য সুপ্রিম কোর্টের তৈরি কমিটি থেকে পদত্যাগ করলেন ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়নের সভাপতি ভূপিন্দর সিং মান। এদিন ইস্তফার কারণ হিসাবে তিনি বলেন, 'কৃষকদের স্বার্থের সঙ্গে আপস' করতে চান না বলেই সরে দাঁড়ালেন তিনি। প্রসঙ্গত, শুক্রবারই ফের সরকার এবং কৃষকদের মধ্যে একদফা আলোচনা হওয়ার কথা। তার একদিন আগেই সরে দাঁড়ালেন এই কৃষক নেতা।

এদিন এক বিবৃতি দিয়ে ভূপিন্দর সিং মান জানান, তিনি নিজে একজন কৃষক এবং একটি কৃষক সংগঠনেকর নেতা। বিভিন্ন কৃষক সংগঠন এবং সাধারণ জনগণের অনুভূতি এবং উদ্বেগের কথা বিবেচনা করে, 'পঞ্জাব ও দেশের কৃষকদের স্বার্থের সঙ্গে আপোস' করবেন না বলেই, আদালতের দেওয়া এই পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন বলে জানিয়েছেন তিনি। তিনি আরও দাবি করেন, 'আমি সর্বদা আমার কৃষকদের এবং পঞ্জাবের পাশে দাঁড়াব'।

গত মঙ্গলবার, দেশের রাজধানীর সীমান্তে ৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে চলা কৃষক বিক্ষোভের সমাধানের জন্য সরকার ও কৃষক পক্ষের মধ্যে আলোচনায় মধ্যস্থতা করার জন্য একটি চার সদস্যের কমিটি গঠন করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। তাতে কৃষক নেতা হিসাবে নাম ছিল ভূপিন্দর সিং-এর। কিন্তু, প্রতিবাদী কৃষকরা সেই কমিটি প্রত্যাখ্যান করেছিল। অভিযোগ করেছিল, এই কমিটির সব সদস্যরাই কৃষি আইনের পক্ষে। আদালতের কমিটি গঠন আসলে কেন্দ্রীয় সরকারেরই খেলা বলে দাবি করেছে।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে, কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র তোমর-এর সঙ্গে দেখা করে, কেন্দ্রের প্রবর্তিত তিন নয়া কৃষি আইন-এর প্রতি সমর্থন জানিয়েছিলেন একদল কৃষক। সেই দলটিকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এই ভূপিন্দর সিং মান। কেন্দ্রে সঙ্গে কৃষকদের পরবর্তী দফা আলোচনার ঠিক আগে কমিটি থেকে তিনি পদত্যাগ করায় এখন বিষয়টি আবার আদালত কক্ষে ফিরে যাবে।