গত ২৪ ঘন্টায় মধ্যে ভারতে ২২,৭৭১ জন নতুন কোভিড রোগীর সন্ধান মিলেছে। একদিনে করোনভাইরাস মামলার সংখ্যা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে নতুন রেকর্ড হল। এর পাশাপাশি ভারতে গত একদিনে কোভিড জনিত কারণে মৃত্যু হয়েছে ৪৪২ জনের। কোভিড মামলার এই বিশাল সংখ্যা বৃদ্ধিতে দেশে এখন মোট কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬,৪৮,৩১৫। আর নিহতের সংখ্যা পৌঁছেছে ১৮,৬৫৫।

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সর্বশেষ তথ্য অনুসারে, ভারতে এখন সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ২,৩৫,৪৩৩ জন। আর সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ৩,৯৯,২২৭ জন।

ভারতের রাজ্যগুলির মধ্যে করোনভাইরাস-এ এখনও সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্য অবশ্যই মহারাষ্ট্র। এই পশ্চিমী রাজ্যের মোট রোগীর সংখ্যা ১,৯২,৯৯০ জন। আর মৃতের সংখ্যা ৮,৩৭৬ ছুঁয়েছে। তারপরেই রয়েছে তামিলনাড়ু। এখানকার মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ১,০২,৭২১ জন। ভারতে মহারাষ্ট্র ছাড়া একমাত্র এই দক্ষিণী রাজ্যেই করোনা রোগীর সংখ্যা ১ লক্ষেরও বেশি। তবে খুব বেশি দূরে নেই দিল্লি। ৯৪,৬৯৫ টি করোনভাইরাস মামলা নিয়ে রাজধানী রয়েছে তৃতীয় স্থানে।

ভারত করোনাভাইরাসে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলির তালিকায় খুব তাড়াতাড়ি রাশিয়াকে চাপিয়ে যাবে এমনটাই মনে করা হচ্ছে। এই তালিকায় সবার আগে আছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, তারপর ব্রাজিল এবং রাশিয়া। আর রাশিয়ার একেবারে গায়ে গায়ে ৪ নম্বরে রয়েছে ভারত। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্র্যাকার অনুসারে ভারতে ৬.৪৮ লক্ষ করোনাভাইরাস রোগী সনাক্ত করা গিয়েছে। আর রাশিয়ায় করোনা মামলার সংখ্যা ৬.৬৬ লক্ষ। তবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ব্রাজিলের অবস্থা তালিকায় বাকি দেশগুলির থেকে অনেকটাই খারাপ। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মোট আক্রান্তের সংখ্যা যেখানে ২৯ লক্ষ ছাপিয়ে গিয়েছে, ব্রাজিলের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে ১৬ লক্ষের কাছাকাছি।