শনিবারই শেষ হয়েছে বিহারের বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। আসতে শুরু করেছে বুথ ফেরত সমীক্ষার ফলাফল। এবারের নির্বাচনে এনডিএ মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে সরাসরি উপস্থাপন করেছে বিহারের গত ১৫ বছরের মুখ্যমন্ত্রী ততা জেডি (ইউ) প্রধান নীতিশ কুমারকে। অন্যদিকে মহাজোটের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী আরজেডি নেতা তথা লালুপ্রসাদ যাদবের পুত্র তেজস্বী যাদব। এনডিএ থেকে বেরিয়ে নতুন সমীকরণ তৈরি করেছেন এলজেপি নেতা চিরাগ পাসওয়ান-ও। কিমন্তু, বিহারবাসী কাকে বেশি পছন্দ করছে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে?

ইন্ডিয়া টুডে ও অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়া-র বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী বিহারে মুখ্যমন্ত্রী হিবাসে জনতার সবচেয়ে পছন্দ তেজস্বী যাদব। ৪৪ শতাংশ বিহারবাসী তাঁকেই বেছে নিয়েছেন পছন্দের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে। সেখানে এনডিএ-র মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী নীতিশ কুমার-কে ফের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চেয়েছেন ৩৫ শতাংশ। অন্যদিকে, এলজেপি নেতা চিরাগ পাসওয়ান-কে মুখ্যমন্ত্রী দেখতে চান মাত্র ৭ শতাংশ। বিজেপি নেতা তথা বর্তমান উপমুখ্যমন্ত্রী সুশীল কুমার মোদীকে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে চেয়েছেন ৩ শতাংশ মানুষ এবং এনডিএ থেকে বেরিয়ে যাওয়া রাষ্ট্রীয় লোক সমতা পার্টির নেতা উপেন্দ্র কুশওয়াকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে পছন্দ করেছেন ৪ শতাংশ মানুষ।

অনেকেই মনে করছেন গত ১৫ বছর ধরে মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসে থাকায় প্রতিষ্ঠান বিরোধিতা কাজ করছে নীতিশ কুমারের বিরুদ্ধে। আবার কেউ কেউ বলছেন বিহারে এইবার বেশ বড় অংশ প্রথমবার ভোট দিচ্ছেন। সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে ১৮ থেকে ২৫ বছর বয়সী ভোটারদের ৪৭ শতাংশ মহাজোটকে ভোট দিয়েছেন। আর ৩৪ শতাংশ ভোট দিয়েছেন এনডিএ-কে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তাঁরা লালু-রাবরির শাসন দেখেননি। তারমধ্যে তেজস্বীর তারুণ্য এবং কর্মসংস্থানের আশ্বাস তাঁদের আকৃষ্ট করেছে। ২৬ থেকে ৩৫ বছর বয়সীরাও ৪৭ শতাংশ ভোট দিযেছেন মহাজোটকে, আর ৩৬ শতাংশ ভোট দিয়েছেন এনডিএ-র পক্ষে।