শনিবার বিহার বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন সংস্থার বুথ ফেরত সমীক্ষার ফলাফল সামনে আসতে শুরু করেছে। অন্যান্য বিভিন্ন সমীক্ষা সংস্থার মতো 'রিপাবলিক জন কি বাত'-এর বুথ ফেরত সমীক্ষাও বলছে আরজেডি-কংগ্রেস-বামদের মহাজোটই সরকার গঠন করতে চলেছে। জেডিউ-বিজেপি-এইচএএম-ভিআইপি'র এনডিএ জোট পিছিয়ে পড়বে অনেকটাই। মুখ্যমন্ত্রী হতে চলেছেন তেজশ্বী যাদব। নীতীশ কুমারের নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট ২৪৩ আসনের বিহার বিধানসভায় অর্ধেক আসনও পাবে না বলে ইঙ্গিত দিয়েছে এই সমীক্ষা। সমীক্ষা আরও ইঙ্গিত দিয়েছে এবারের নির্বাচনে তেজস্বীর নেতৃত্বে আরজেডিই একক বৃহত্তম দল হিসাবে আত্মপ্রকাশ করবে।

বিহারে ক্ষমতা দখলের জন্য প্রয়োজন ১২২টি আসন। সেখানে রিপাবলিক জন কি বাত-এর সমীক্ষা বলছে ১১৮ থেকে ১৩৮ টি আসন জিততে পারে মহাজোট। আর এনডিএ জিততে পারে ৯১ থেকে ১১৭ টি আসন। আর এনডিএ থেকে বেরিয়ে যাওয়া এলজেপি জিততে পারে ৫ থেকে ৮ টি আসন। অন্যান্যদের ঝুলিতে যাবে ৩ থেকে ৬ টি আসন।

আর দল হিসাবে সবচেয়ে বেশি আসন জিততে চলেছে আরজেডি। তারা পেতে পারে ৭৯ থেকে ৯৯ আসন। দ্বিতীয় হতে চলেছে বিজেপি, জিততে পারে ৬০ থেকে ৭৫ আসন। নীতিশ কুমারের জেডি (ইউ) নেমে যাবে ৩১ থেকে ৪২ আসনে। তারপর থাকছে কংগ্রেস। তারা জিততে পারে ২৪ থেকে ৩০ টি আসনে। বামেদের পক্ষে আসতে পারে ১৫ থেকে ১৭ আসন। ওয়াইসির এইআইমিম জিততে পারে ১টি আসনে। এইচএএম এবং ভিআইপি একটিও আসন পাবে না বলেই উঠে এসেছে সমীক্ষায়।

ভোট শেয়ার অর্থাৎ ভোট ভাগাভাগির ক্ষেত্রে মহাজোট ৪০ থেকে ৪৩ শতাংশ ভোট পেতে পারে। আর এনডিএ পেতে পারে ৩৭ থেকে ৩৯ শতাংশ ভোট, বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে এলজেপি-র ধুলিতে যাবে মাত্র ৭ থেকে ৯ শতাংশ ভোট। অন্যান্যরা রাজ্যের ৮ থেকে ১০ শতাংশ ভোট ভাগাভাগি করে নেবে। আসন ভাগাভাগির সঙ্গে মিল রয়েছে দল হিসাবে ভোট ভাগাভাগির হিসাব-ও। সবার আগে আছে আরজেডি (২৪-২৬%)। তারপর রয়েছে যথাক্রমে - বিজেপি (১৮-২০%), জেডিউ (১৫ -১৬%), কংগ্রেস (৮-৯%), বাম (৬.৫ -৮%),  এইচএএম (১.৫-২%), ভিআইপি (২%)।

অর্থাৎ, মহাজোট সরকার গড়ার বিষয়ে এগিয়ে থাকলেও এই ভোটে রিপাবলিক জন কি বাত -এর বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী সবচেয়ে লাভবান হতে চলেছে আরজেডি এবং বিজেপি, এটা স্পষ্ট।