বৃহস্পতিবার বিহারের ২৪৩ টি বিধানসভা আসনের জন্যই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল মহাগোটবন্ধন, অর্থাৎ রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি), কংগ্রেস এবং বাম দলগুলির জোট। মহাগোটবন্ধনের পক্ষ থেকে আগেই জানানো হয়েছিল আরজেডি ১৪৪ টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে, কংগ্রেস ৭০ টিতে এবং বাম দলগুলিকে ২৯টি আসনে লড়বে। সেই ফর্মুলা মেনেই প্রার্থী তালিকা চুড়ান্ত করা হয়েছে।

জোটের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী আরজেডি নেতা তেজশ্বী যাদব প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন রাঘোপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে১৯৯৫ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত এই আসন থেকেই লড়তেন লালুপ্রসাদ যাদব। তারপর একই আসন থেকে জিতে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন রাবরি দেবী। গত বিধানসভা নির্বাচনে এই আসনটি আরজেডি ছেড়ে দিয়েছিল জেডিইউ-কে। ২০১৫ সালে প্রথম এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছিলেন তেজস্বী।

তবে চমক রয়েছে কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকায়। বলি অভিনেতা তথা রাজনীতিবিদ শত্রুঘ্ন সিনহার ছেলে লব সিনহা-কে বঙ্কিপুরের বিধানসভাকেন্দ্র থেকে টিকিট দিয়েছে কংগ্রেস। আর জনতা দল নেতা শরদ যাদবের মেয়ে সুভাষিনী যাদব বিহারীগঞ্জ আসন থেকে কংগ্রেসের প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। দিন কয়েক আগেই সুভাষিনী জাতীয় কংগ্রেসে যোগ দেন। এর আগে, কংগ্রেস ২১ টি বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থীর নামের প্রথম তালিকা প্রকাশ করেছিল। বৃহস্পতিবার আরও ৪৯ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়।

বামদলগুলির মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রার্থী দিচ্ছে সিপিআই (এমএল)। তারা ১৯টি আসনে প্রার্থী দিয়েছে। আর সিপিআই (এম) এবং সিপিআই যথাক্রমে ৪টি ও ৬টি আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে।

এবার তিন ধাপে হচ্ছে ২৪৩ বিধানসভা আসনের বিহার বিধানসভা নির্বাচন। প্রথম পর্বের ভোটগ্রহণ ২৮ অক্টোবর। ওইদিন হবে ৭১ আসনের ভোটগ্রহণ। তারপর, ৩ নভেম্বর ৯৪ টি আসনে এবং বাকি ৭৮ টি আসনের ভোটগ্রহণ হবে ৭ নভেম্বর। ১০ নভেম্বর গণনা ও ফলাফল ঘোষণা।