এক দিনের সফরে উত্তরবঙ্গ সফরে বিজেপি জাতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। এদিন সকাল ১১টা নাগাদ বাগডোগরা বিমান বন্দরে পা রেখেন তিনি। তাঁকে স্বাগত জানাতে বিজেপি নেতা ও কর্মীদের ভিড় ছিল তোখে পড়ার মত। করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রোটোকল মেনেই বিজেপি কর্মীরা তাঁকে অভ্যর্থনা জানান। পুষ্প বৃষ্টির মধ্যে দিয়ে বরণ করে নেন তাঁকে। ভিড় সামলানে কিছুটা হলেও হিমসিম খেতে হয় নিরাপত্তা রক্ষীদের। 


বিমান বন্দর থেকেই দলীয় কর্মীদের সঙ্গে মিছিলে যোগ দেন তিনি। শ্রদ্ধা জানাবেন পঞ্চানন বর্মার মূর্তিতে। পাশাপাশি এদিনই দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকও করবেন তিনি।  নুকাঘাট হয়ে তিনি যাবেন আনন্দময়ী কালিবাড়ি মন্দিরে।  মাত্র১৫ মিনিট সেখানে থাকবেন বিজেপি নেতা। পুজোও দিতে পারেন বলে দলীয় সূত্রে খবর।  তারপর চলে যাবেন হোটেল স্যাফরন ক্রিস্ট হোটেলে। দলীয় প্রতিনিধিদের সঙ্গে সেখানে একপ্রস্থ বৈঠক করার কথা রয়েছে তাঁর। করতে পারেন সাংবাদিক বৈঠকও। করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে এই প্রথমবারের জন্য তিনি বাংলায় আসছেন।  সোমবার তাঁর সঙ্গে থাকবেন ভারতীয় জনতা পার্টির বাংলার ইনচার্জ কৈলাশ বিজয়বর্গিয়।,থাকবেন মুকুল রায়সহ রাজ্যস্তরের শীর্ষ নেতারা। কৈলাশ বিজয়বর্গিয় জানিয়েছেন জেপি নাড্ডার এই সফরে কোনও সমাবেশ হবে না। দলীয় কর্মীদের নিয়ে একটি সভা অনুষ্ঠিত হবে। আর সেখানেও মেনে চলা হবে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত প্রোটোকল। 

আগামী বছরই বাংলায় বিধানসভা নির্বাচন। গত লোকসভাল নির্বাচনে বিজেপি উত্তরবঙ্গে ভালো ফল করেছে। আর সেই কারণে আগামী বিধানসভা নির্বাচনেও যাতে উত্তরবঙ্গে থেকে ভালো ফল করতে পারে সেদিকেও নজর দিচ্ছে গেরুয়া শিবির। ২৯৪ আসন বিশিষ্ট পশ্চমবঙ্গ বিধানসভায় উত্তরবঙ্গের আসন সংখ্যা ৫৪। আর সেই কারণেই এখন থেকে উত্তরবঙ্গে বিশেষত রাজবংশী ভোটের দিকেই মনোযোগ দিয়েছে বিজেপি। উত্তরবঙ্গে ৫০ শতাংশই বাজবংশী ভোটার। এক দিনের সফরে উত্তরবঙ্গে এলেও ঠাকুর পঞ্চানন বর্মাকে শ্রদ্ধা জানাবেন বিজেপির জাতীয় সভাপতি।