রাজস্থানে রাজনৈতির উত্তেজনা প্রশনের কোনও লক্ষ্যনই নেই। বরং নাটক এখন একেবারে তুঙ্গে। শুক্রবারই কংগ্রেস অভিযোগ করেছিল, দলের বিক্ষুব্ধ বিধায়ক ভানোয়ারলাল শর্মা বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে অশোক গেহলট সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন। এই প্রমাণ তাদের কাছে রয়েছে। 

সাংবাদিক সম্মেলেন করে কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা দলীয় বিধায়ক ভানোয়ারলালের দিকে গুরুতর অভিযোগ তুলেছিলেন। কংগ্রেস দাবি করে কিছু অডিও টেপ তাঁদের হাতে এসেছে যেখানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গজেন্দ্র শেখাওয়াতের সঙ্গে ভানোয়ারলাল ও ব্যবসায়ী সঞ্জয় জৈনের কথোপকথন রয়েছে। এরপরেই তদন্তে নেমে পুলিশ গ্রেফতার করেছে সঞ্জয় জৈনকে। এবার এই বিষয়েই রাজস্থানের কংগ্রেস সরকারকে পাল্টা দিল ভারতীয় জনতা পার্টি।

আরও পড়ুন: শচীনের বিজেপি যাওয়া আটকাতে এবার মরিয়া কংগ্রেস, দলে ফিরলে বরণ করবেন বললেন বিরোধী গেহলট

গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, রাজস্থানের রাজনীতিকদের ফোন অবৈধভাবে ট্যাপ করেছে গেহলট সরকার। শনিবার এই অভিযোগের ভিত্তিতে সিবিআই তদন্তের দাবি তুলেছে বিজেপি। রীতিমতো "অসাংবিধানিক" পদক্ষেপ করে সরকার বাঁচানোর চেষ্টা করছে কংগ্রেস এমন কথাও বলছেন পদ্ম শিবিরের নেতারা।

শনিবার দিল্লিতে সাংবাদিক সম্মেলনে বিজেপির মুখপাত্র সম্বিত পাত্র বলেন , কংগ্রেসের বিরুদ্ধে দলীয় নেতাদের ফোন ট্যাপ করার অভিযোগে সিবিআই তদন্তের দাবি করা হচ্ছে। পাশাপাশি  ফোন ট্যাপিং–এর ক্ষেত্রে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর বা এসওপি মানা হয়েছে কিনা তাও জানতে চেয়েছেন সম্বিত। রাজস্থান সরকারের কাছে জবাবদিহি দাবি করে সম্বিত বলেন, যেখানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং অন্য নেতারা ওই অডিও ক্লিপকে সত্যি বলে দাবি করেছেন, সেখানে এফআইআরে উল্লেখ করা হয়েছে যে ওই অডিও ক্লিপটি ভুয়ো। 

 

 

সম্প্রতি রাজস্থান কংগ্রেসের তরফ থেকে একটি অডিও ক্লিপ প্রকাশ করে দাবি করা হয় যে, গেহলট সরকারকে সরাতে দল ভাঙানোর ষড়যন্ত্র করছে বিজেপি। যদিও সেই অভিযোগ পুরোপুরি নস্যাৎ করে গেরুয়া শিবিরের দাবি, নিজের বাড়িতে বসেই ষড়যন্ত্র করছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট।

আরও পড়ুন: রাজনীতির মত প্রেমেও এসেছিল কড়া চ্যালেঞ্জ, পরিবারের অমতে গিয়েই বিয়ে করেছিলেন শচীন পাইলট

এদিকে, কেন্দ্রীয়মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াতের নাম জড়িয়ে অডিও ক্লিপ প্রকাশের জন্য রণদীপ সুরজেওয়ালা, মহেশ জোশি এবং গোবিন্দ সিং দোতসারা সহ কংগ্রেসের বেশ কয়েকজন নেতার  নামে অশোক নগর থানার  লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন রাজস্থানে বিজেপির মুখপাত্র লক্ষ্মীকান্ত ভরদ্বাজ। অভিযোগে বলা হয়েছে, উক্ত কংগ্রেস নেতারা নিয়মিতভাবে মিথ্যা এবং উস্কানিমূলক বিবৃতি দিয়ে যাচ্ছিলেন বিজেপির বিরুদ্ধে।  বিজেপির মুখপাত্র লক্ষ্মীকান্ত ভরদ্বাজের অভিযোগ, পুরো ছকটাই মুখ্যমন্ত্রী গেহলটের সরকারি বাসভবনে বসে করা হয়েছে। সেখানে বিজেপি নেতাদের গলা নকল করে ফোনালাপে  মানুষকে বোঝানো হয়েছে যে কংগ্রেস নেতাদের কিনতে টাকা ছড়িয়েছে বিজেপি। এবং মুখ্যমন্ত্রীর ওএসডি বলে নিজের পরিচয় দেওয়া লোকেশ শর্মাই পুরো ব্যাপারটি পরিচালনা করেছিলেন। ভরদ্বাজের অভিযোগ, ‌গত ১৬ তারিখ রাত ৮.‌২৫ মিনিট নাগাদ সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের কাছে তিনটি অডিও টেপ প্রকাশ করা হয়েছিল হোয়াটস্‌অ্যাপের মাধ্যমে। যাতে অনেক বেশি করে এই অডিও ক্লিপ ছড়িয়ে যায়। এমনকি জয়পুরের একটি দৈনিকে পরদিন লোকেশের নামোল্লেখও করা হয়েছিল।