গাড়ি শিল্পে দেখা দিয়েছে চরম আর্থিক মন্দা। চলতি বছরে জুলাই মাস পর্যন্ত টানা নয় মাস ধরে কমে গিয়েছে গাড়ির বিক্রি। জুলাই মাসেই প্রায় একত্রিশ শতাংশ হারে কমে গিয়েছিল গাড়ি বিক্রীর হার। শোরুমগুলিতে পড়ে রয়েছ অবিক্রীত নতুন গাড়ি। এই পরিস্থিতিতে বহু গাড়ি নির্মাণ সংস্থাই কর্মী ছাঁটাইয়ের পথে নেমেছে। আর এবার ধুঁকতে থাকা গাড়ি শিল্পকে চাঙ্গা করতে এক নয়া সিদ্ধান্তের পথে কেন্দ্র।

গাড়ি শিল্পের জিএসটি কমানোর সিদ্ধান্তে এক কদম এগিয়েছে কেন্দ্র। রবিবার চেন্নাইতে একটি সাংবাদিক সম্মেলনে যোগ দিয়ে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ জানান, জিএসটি কাউন্সিলের পরবর্তী বৈঠকে সরকারের তরফে গাড়ির ওপর থেকে জিএসটির ভার কমানোর প্রস্তাব দেওয়া হবে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে খুব শীঘ্রই গাড়ি শিল্পের করের বোঝা হ্রাস করার চেষ্টা করা হবে। 

প্রসঙ্গত, করের বোঝা কমলে স্বাভাবিকভাবেই গাড়ির দাম কমবে। যার ফলস্বরূপ গাড়ি বিক্রির আশঙ্কা কম হবে বলেও জানাচ্ছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে গাড়ি শিল্পের এই মন্দার পরিস্থিতি খানিকটা হলেও উন্নতি ঘটবে বলে মনে করা হচ্ছে। অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা আরও জানিয়েছেন, গত ১৮ বছরে গাড়ি শিল্পে এই পরিমাণ মন্দা দেখা দেয়নি।

গাড়ি বিক্রিতে মন্দার জের, তিন হাজার অস্থায়ী কর্মীকে ছাঁটাই মারুতি- সুজুকির

সম্প্রতি গাড়ি শিল্পে মন্দার জেরে বিপর্যস্ত মারুতি সুজুকি কোম্পানীও। অগাস্ট মাসের শেষে সংস্থার পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল চুক্তিভিত্তিক তিন হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করবে সংস্থা। ব্যবসায়ে মন্দার কারণেই কর্মরত কর্মীদের সঙ্গে চুক্তির পুনর্নবীকরণ হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছিল সংস্থা।