সিএএ-২০১৯ নিয়ে দেশ জুড়ে বিক্ষোভ চলছে। বিজেপি-র দাবি এই নয়া আইন নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে বিরোধীরা। তাই ঠিকটা বোঝাতে বাড়ি বাড়ি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। কিন্তু রবিবার সকালে চেন্নাই-এ এক মহিলা আইনজীবীর বাড়িতে গিয়ে সিএএ বোঝাতে যেতেই, যে জবাব মিলল তার জন্য গেরুয়া শিবিরের কর্মী তৈরি ছিলেন না। ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিওটি নিজেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন চেন্নাই-এর খ্যাতিনামা আইনজীবী ও কলাম লেখক এলিজাবেথ শেষাদ্রি। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে বিজেপি কর্মীরা সম্ভবত সিএএ-র সমর্থনে প্রকাশিত একটি পুস্তিকা তাঁকে দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু এলিজাবেথ শেষাদ্রি তা তীব্রভাবে প্রত্যাখ্যান করে সাফ জানিয়ে দেন, তিনি 'সিএএ বিরোধী'।

তারপরেও বিজেপি কর্মীরা হাল ছাড়েননি। তারা পুস্তিকাটি নেওয়ার জন্য জেদাজেদি করলে এলিজাবেথ বেশ উচ্চস্বরে বলে ওঠেন, 'হিন্দু মুসলিম শিখ ইসাই, হাম সব হাই ভাই-ভাই' (হিন্দু মুসলিম শিখ খ্রিস্টান, আমরা সবাই ভাই ভাই)। জবাবে, বিজেপি কর্মীরাও "ভারত মাতা কি জয়" বলে স্লোগান দিতে শুরু করেন। দুঁদে আইনজীবী অবশ্য সেই স্লোগানেও গলা মেলান। এভাবে দুই পক্ষই কিছুক্ষণ স্লোগান দেওয়ার পর বিজেপি কর্মীরা হতাশ হয়ে ফিরে যান। এলিজাবেথ শেষাদ্রি তাঁদের বিনীতভাবে বিদায় জানান।

এই ভিডিওটি শেয়ার করে এলিজাবেথ, হ্যাশট্যাগ নোসিএএ এবং হ্যাশট্যাগ নোএনআরসি দিয়ে ক্যাপশনে লিখেছেন, 'সতর্ক হোন, বিজেপির গ্যাং ঘুরঘুর করছে। আজ সকালে আমার বাড়ি এসেছিল। তারা 'সিএএ'র ব্যাখ্যা দিতে চেয়েছিল। দুর্ভাগ্যবশত অতর্কিতে আমার বাড়িতে এসেছিল, তাই স্বভাব মতো আমি তাদেরর নম্রভাবে বিদায়টি জানিয়েছি। পরেরবার আমি একেবারে গুন্ডাদের মতো হব'।

দেখে নেওয়া যাক সেই ভাইরাল ভিডিও -

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। অনেকেই তাঁর সাহসী ও ধর্মনিরপেক্ষ জবাবের প্রশংসা করেছেন। তবে কেউ কেউ বলেছেন, এলিজাবেথ বাড়াবাড়ি করেছেন। বাড়ি এসে পুস্তিকা দিলে তা নেওয়া উচিৎ।