চিন দখল করে নিয়েছিল ভারতীয় ভূখণ্ড। তাও ১-২ কিসলোমিটার নয়, একেবারে ৩৭২৪৪ বর্গ কিলোমিটার! লাদাখ অঞ্চলে চিনের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে বিরোধ বিষয়ে মোদী সরকারের 'নীরবতা' নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংকে উদ্দেশ্য বলেন, লাদাখে চিনা সেনা ভারতীয় ভূখণ্ড দখল করেছে কি করেনি সেই বিষয়ে স্পষ্ট জবাব দিতে। রাজনাথ সিং-এর বদলে জবাব দিলেন লাদাখের বিজেপি সাংসদ জামায়াং সেরিং নামগিয়াল।

তবে সম্প্রতি নয়, তিনি জানিয়েছেন চিন সেনা ১৯৬২ সালে কংগ্রেসের শাসনকালে ৩৭২৪৪ বর্গ কিলোমিটার এলাকার আকসাই চিন, চুমুর অঞ্চলে টিয়া পাঙ্গনাক এবং চাবজি উপত্যকা (২৫০ কিমি দৈর্ঘ্য) দখল করেছিল। ২০০৮ সাল পর্যন্ত এই এলাকা চিনের দখলেই ছিল। অর্থাৎ, ১৯৬২ সালের যুদ্ধে কংগ্রেস সরকারের নেতৃত্বে চিনের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ভারতের পরাজয়ের কথা তুলে রাহুল গান্ধীকে জবাব দিলেন তিনি।

তবে, এখানেই থামেননি নামগিয়াল। তিনি আরও জানান, ২০০৮ সালে ডেমজকের জোড়োয়ার্ট ফোর্ট ধ্বংস করেছিল চিনা পিএলএ। ২০১২ সালে ওই এলাকায় পিএলএর পর্যবেক্ষণ পয়েন্ট এবং ১৩ টি পাকা বাড়ি তৈরি করে চিনা উপনিবেশ স্থাপন করেছিল। ২০০৮-২০০৯ সালে ডুংটি এবং ডেমজোকের মধ্যে  প্রাচীন বাণিজ্যকেন্দ্র ডুম চেলি-ও দখ করেছিল চিন। আর এই সবই হয়েছিল ইউপিএ সরকারে শাসনকালে।

লাদাখের সাংসদ এই বিষয়ে একটি ছবিও পোস্ট করেছেন। তাঁর দাবি, ছবিটি ইউপিএ শাসনকালে চিনাদের দখলে থাকা লাদাখের একটি অঞ্চল। এই ইতিহাস স্মরণ করিয়ে দিয়ে এবং ছবি পোস্ট করে তিনি লেখেন, 'আশা করি রাহুল গান্ধী এবং কংগ্রেস তথ্যের ভিত্তিতে আমার জবাবের সঙ্গে একমত হবে এবং তারা আর (মানুষকে) বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করবে না।'