পুনর্গঠন করা হবে নেহেরু মিউজিয়াম এবং লাইব্রেরি সোসাইটির। ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় সরকার। আর তাতেই বাদ গেল মল্লিকার্জুন খাড়গে, জয়রাম রমেশ এবং করণ সিং-এর মত কংগ্রেস নেতাদের নাম।

মঙ্গলবার কেন্দ্রের তরফে নতুন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। যাতে সোসাইটির প্রেসিডেন্ট পদে রয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নাম , ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে রয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। 

এতদিন  নেহেরু মিউজিয়াম এবং লাইব্রেরি সোসাইটির সদস্যপদে ছিলেন কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে, জয়রাম রমেশ এবং করণ সিং। তাঁদের সরিয়ে দিয়ে কমিটির সদস্য করা হয়েছএ সাংবাদিক রজত শর্মা, গীতিকার প্রসূন যোশী ও বিজেপি ঘনিষ্ঠ লেখক অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়কে। আগে নেহেরু মিউজিয়ামের সদস্য হয়েছিলেন সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীও। 


এছাড়াও নেহেরু মিউজিয়ামের সদস্য হিসাবে রয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, নির্মলা সীতারমণ, রমেশ পোখরিয়াল, প্রকাশ জাভারেকর, ভি মুরলীধরণ এবং প্রহ্নাদ সিং প্যাটেল। রয়েছেন আইসিসিআইর চেয়ারম্যান শাহরাবউদ্দিন, প্রসার ভারতীর চেয়ারম্যান এ সূর্য প্রকাশ। পাঁচ বছরের জন্য এই সদস্যপদ দেওয়া হয়ে থাকে। 

ক্ষমতায় আসার পর থেকে ইন্দিরা গান্ধী ও জওহরলাল নেহেরুকে বারবার কাঠগড়ায় তুলেছেন মোদী সহ বিজেপি নেতারা। এবার সেই নেহেরুর ঐতিহ্যকেও বিজেপি দখল করতে চাইছে বলে অভিযোগ তুলছে কংগ্রেস শিবির। বর্তমান নেহেতু সোসাইটির সদস্য হিসাবে কংগ্রেসের কোনও নেতাই আর রইলেন না। কেন্দ্রের সরকার সবকিছুতেই রাজনীতি করছে বলে ট্যুইটে নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে। সরকার সবকিছুতেই রাজনীতি করছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।