নেতৃত্ব নিয়ে আবারও কংগ্রেসর বিবাদ প্রকাশ্যে চলে এসেছে। বর্তমান সাসপেন্ড রয়েছেন কংগ্রেস নেতা তথা দলের প্রবক্তা সঞ্জয় ঝা। তিনি দলের বেহাল দশা নিয়ে আবারও আঙুল তুললেন হাইকমান্ডের দিকে।   বলেছেন, দলের বহু নেতাই রাজনৈতিক পরিবর্তন চায়। আর সেই কারণেরই কংগ্রেসের প্রায় একশো জন নেতা সনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখেছেন। পাশাপাশি তিনি দাবি করেছে দলের নির্বাচন প্রক্রিয়া স্বচ্ছ করারও। 

শচীন পাইল ইস্যুতে কংগ্রেসের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন সঞ্জয় ঝা। তারপরই কংগ্রেসের মুখপাত্রের পদ থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারপরেও মুখে কুলুপ আঁটেননি সঞ্জয় ঝাঁ। সোমবার তিনি  সোশ্য়াল মিডিয়ার বার্তায় বলেছেন, দলের অভ্যন্তরীন পরিস্থিতি দেখে হতাশাগ্রস্ত হয়ে দলের প্রায় ১০০ জন নেতা (যাঁদের মধ্যে সাংসদও রয়েছেন) সভানেত্রী সনিয়া গান্ধীকে একটি চিঠি লিখেছেন। পাশাপাশি সিডাবলুসিতে রাজনৈতিক নেতৃত্বের পরিবর্ত ও স্বচ্ছ নির্বাচনের জন্য অনুরোধ করেছেন। 

কিন্তু সঞ্জয় ঝার এই বার্তার পরই আসরে নামেন কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা। তিনি সরাসরি শতাধিক নেতার লেখা চিঠির বিষয়টি উড়িয়ে দিয়েছেন বলেছেন এমন কোনও চিঠি কংগ্রেসের কোনও নেতা লেখেননি। পাশাপাশি তিনি বলেন ফেসবুক-বিজেপি যোগাযোগের বিষয়টি থেকে দৃষ্টি ঘোরাতেই কংগ্রেস নেতাদের অরক্ষিত চিঠির গল্প উত্থাপন করা হয়েছে। টিভি ও মিডিয়ায় নতুন বিতর্ক তৈরি করার চেষ্টা করা হয়েছে। পাশাপাশি তিনি বলেন বিজেপি কূটনীতিকরা এই বিষয়টি নিয়ে তৎপর হতে শুরু করেছেন। 


ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ফেসবুক আর বিজেপির মধ্যে যোগাযোগ রয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছিল। তারপরই বিষয়টিকে হাতিয়ার করে বিজেপির বিরুদ্ধে আসরে নামে কংগ্রেস। কিন্তু এই বিষয়টি আপাতত কোনওভাবেই যে তারা হাতছাড়া করতে রাজি নয় তা আবারও বুঝিয়ে দিয়েছেন রণদীপ সুরজেওয়ালা। দলের ভিতরকার সমস্যা নিয়েও তিনি বিজেপি-ফেসবুক যোগ সামনে এনেছেন।