মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় কোভিড মহামারি চলাকালীন সপ্তমবারের জন্য জাতি উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ১২ মিনিটের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে মূলত উৎসবের মরসুমে ভারতবাসীকে করোনা মহামারি নিয়ে সতর্ক করেছেন তিনি। তবে তাঁর ভাষণের পরই কংগ্রেস দলের পক্ষ থেকে একেবারে তালিকা তৈরি করে অভিযোগ করা হয়েছে যে, ছয়টি 'গুরুত্বপূর্ণ বিষয়' মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বক্তৃতায় উল্লেখ করতে ভুলে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণকে কংগ্রেস নেতা জয়বীর শেরগিল  'সন্ধ্যা ৬টার স্বগতোক্তি' বলে কটাক্ষ করেছেন। বস্তুত, প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই একটিও সাংবাদিক বৈঠক না করা নিয়ে (একটি বৈঠকে উপস্থিত থাকলেও কোনও কথা বলেননি) প্রধানমন্ত্রী মোদীকে বিদ্ধ করেছে বিরোধীরা। 'স্বগতোক্তি' কথাটির মধ্য দিয়ে সেই কথাই আরও একবার স্মরণ করিয়ে দিতে চেয়েছেন কংগ্রেস নেতা, এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু, ',স্বগতোক্তি' করলেও, সেখানে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় 'মিস করেছেন' মোদী এমনটাই দাবি করেছে কংগ্রেস।

এই বিষয়গুলি দেশের জন্য খুবই উদ্বেগের বলে টুইটারে দাবি করেছেন জয়বীর শেরগিল। কী সেই ছয় বিষয়?
১. বেকারত্ব

২. নারী সুরক্ষা

৩. চিন

৪. কৃষক বিক্ষোভ

৫. অর্থনৈতিক সঙ্কট

৬. কোভিড রোগীর সংখ্যার ভারত কেন বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে?

জয়বীরের এই টুইটের আগেই, এমনকী প্রধানমন্ত্রীর ভাষণেরও আগে চিন প্রসঙ্গে তাঁর দিকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধী। মোদীর সমালোচনা করে তিনি সন্ধ্যা ৬টার ভাষণে কত তারিখের মধ্যে চিনাদের তিনি ভারতীয় এলাকার বাইরে বের করতে সক্ষম হবেন, তা জানাতে আহ্বান করেছিলেন। রাহুল আরও বলেন, চিনা সম্পর্কে একটিও কথা বলার, এমনকী চিন শব্দটি উচ্চারণ করার মতোও 'সাহস' নেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর।