রবিবার কলকাতায় অমিত শাহ-এর সভা ঘিরে ফের 'গোলি মারো' স্লোগান উঠেছে। অমিত শাহ কলকাতায় আসার আগে থেকেই দিল্লি হিংসার দায় নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ থেকে অমিতের পদত্যাগ দাবি করেছে। রবিবার কলকাতা পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জায়গাতেও একই দাবি নিয়ে বিক্ষোভ দেখায় বাম কংগ্রেস। অমিতের সভার পর কংগ্রেস পরিষদীয় দলের নেতা অধীর চৌধুরী জানান আসন্ন সংসদ অধিবেশনে এই নিয়ে সভায় আওয়াজ তুলতে চলেছেন তাঁরা।

সোমবার থেকেই সংসদে বাজেট ্ধিবেশনের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হচ্ছে।  অধীর জানিয়েছেন আসন্ন অধিবেশনে তাঁরা বিজেপির মুখোশ কুলে দেবেন। সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়েই তাঁরা আক্রমণ করবেন। ছেড়ে কথা বলবেন না। তিনি আরও অভিযোগ করেন, বিজেপি যেখানেই যায় ,সেখানেই কেন্দ্র ভেদাভেদর রাজনীতি করে। উত্তপূর্ব দিল্লি থেকে কর্নাটক পর্যন্ত তারাই টুকরে টুকরে গ্যাঙের নেতা বলে অভিযোগ করেন তিনি।

অধীর চৌধুরী আরও বলেন, দিল্লিতে বিজেপি মন্ত্রীদের নাকের ডগগাতেই এই চরম হিংসা চলল। আবার, এদিন কলকাতায় অমিত শাহ যেতেই গোলি মারো স্লোগান উঠল। গোটা দেশে সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়িয়ে পড়ছে অভিযোগ করে অধীর বলেন, 'বিজেপি নেতারা যেখানেই যান বিষ ছড়ান'।

বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় ভাগ দিল্লির হিংসার ঘটনা নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে উছবে বলে আশঙ্কা করছেন সংসদ বিশেষজ্ঞরা। গত রবিবার থেকে সিএএ-কে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছিল সমর্থক ও বিরোধীদের সংঘর্ষ। এর পিছনে রবিবার দুপুরে মৌজপুরে বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রের একটি উস্কানিমূলক ভাষণ দায়ী বলে অভিযোগ করা হচ্ছে। সেই ঘটনায় অন্তত ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং প্রায় ৩০০ মানুষ গুরুতর আহত হন। এদিনও উত্তরপূর্ব দিল্লি থেকে আরও দুইজনের দেহ মিলেছে।