জম্মু ও কাশ্মীর-এর বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ ধারা রদ এবং জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ-কে দুটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মর্যাদা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এরপর থেকে বেশকিছুদিন ধরে কাশ্মীরের পরিস্থিতি ছিল যথেষ্ট উত্তপ্ত। আর এরই মধ্যে কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেছে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি।  

এদিন কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির তরফ থেকে আবেদন করা হয় জম্মু ও কাশ্মীরে যাতে রাজনৈতিক নেতাদের প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়। একটি বিবৃতি প্রকাশ করে জম্মু ও কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতাদের গৃহবন্দি করে রাখার বিষয়টা নিয়েও আপত্তি তোলে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি। 

শুধু তাই নয়, কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটি সরকারকে স্বচ্ছভাবে কাজ করারও পরামর্শ দিয়েছেন। প্রসঙ্গত, শনিবার কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে সনিয়া গান্ধীকে অন্তর্বর্তী সভানেত্রীর দায়িত্ব নিতে অনুরোধ করা হয়। যতদিন না নতুন সভাপতি নির্বাচন হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত তিনিই দায়িত্বে থাকবেন। সনিয়া গান্ধী সেই প্রস্তাব গ্রহণ করেছেন। আর এরপরই কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির তরফে বিবৃতি দিয়ে বিষয়টি জানানো বয়।