বেশ কয়েক দিন নিম্মগামী থাকার পর বুধবার আবারও উর্ধ্বগামী হয়ে গেল করোনাভাইাসের পরসংখ্যানের গ্রাপে। গতকাল যেখানে করোনা আক্রান্তের দৈনিক  সংখ্যা ১৯ হাজারের কিছুটা বেশি ছিল। যা গত ১৭৩ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন।  সেখানে বুধবার দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা ২৩ হাজারের বেশি। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ২৩ হাজার ৯৫০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩৩৩ জনের। গতকালের তুলনায় এদিন দৈনিক সংক্রমণ ২২ শতাংশ বেড়েছে গেছে বলেও মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। 

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৯৯ হাজারের বেশি। এখনও পর্যন্ত মহামারির কবলে পড়ে মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ৪৬ হাজার ৪৪৪ জনের। বর্তমানে দেশে অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ২ লক্ষ ৮৯ হাজারের বেশি। সুস্থ হয়ে যাওয়া মানুষের সংখ্যা ৯৬  লক্ষ ৬৩ হাজারের বেশি। চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাস থেকে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে গোটা দেশ লড়াই করছে। বিশ্বের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দেশগুলির ক্রম তালিকায় এখনও পর্যন্ত দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। প্রথম স্থানে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। 

কিন্তু বর্তমানে গোটা বিশ্ব ব্রিটেনে সন্ধান পাওয়া করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেন নিয়ে উদ্বিগ্ন তখন ভারত অনেকটাই নিরাপদ বলে জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। নীতি আয়োগের সদস্য ভিকে পল মঙ্গলবারই জানিয়েছিলেন, ইংল্যান্ডে কোভিড-১৯ এর যে স্ট্রেন পাওয়া গেছে সেটি ৭০ শতাংশ দ্রুত সংক্রামক। কিন্তু এখনও পর্যন্ত এই স্ট্রেন ভারতে পাওয়া যায়নি। তবে সতর্কতা বজায় রেখে চলতে হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। তিনি আরও জানিয়েছেন ব্রিটেনের গবেষকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। পুরো বিষয় নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার যথেষ্ট সচেতন বলেও জানিয়েছেন তিনি।