করোনাভাইরাসের পরীক্ষার রিপোর্ট নাকি ধাঁধার প্রশ্ন? কোনটা ঠিক, তা জানতে এবার রীতিমত মাথার চুল ছিঁড়ছেন এক জনপ্রতিনিধি। রাজস্থানের সাংসদ হমুনাম বেনিওয়াল সোমবার লোকসভার অধিবেশন স্থগিত হওয়ার পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বার্তা দেন। আর সেখানেই তিনি তুলে ধরেন তাঁর দুটি করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট। যেখানে একটি তিনি পজেটিভ। আর অন্যটিতে তিনি নেগেটিভ। তাই নেটিজেনদের কাছেই তাঁর প্রশ্ন কোন রিপোর্টটি সঠিক। 

রাজস্থানের বিজেপি সাংসদের কথায়, লোকসভা চত্ত্বরেই করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করান তিনি। সেই রিপোর্ট অনুযায়ী তিনি পজেটিভ। কিন্তু তার আগেই জয়পুরে  এসএমএস হাসপাতালের দ্বিতীয় করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী তিনি নেগেটিভ। এদিন দুটি রিপোর্টই তিনি শেয়ার করেন সোশ্য়াল মিডিয়ায়। একটি রিপোর্ট দাখিল করা হয়েছে ১৩ সেপ্টেম্বর। অন্যরিপোর্টটি দাখিল করা হয়েছে ১৪ সেপ্টেম্বর। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে কোন রিপোর্টটি তিনি কাজে লাগাবেন তাই নিয়ে শুরু হয়েছে ধ্বন্দ। 


অন্যদিকে সংসদে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের বিরুদ্ধে একাধিক পদক্ষেপ করা হয়েছে। কিন্তু তাও রুখে দেওয়া যায়নি সংক্রমণ। সংসদের বাদল অধিবেশনের প্রথম দিনেই লোকসভার ১৭ সাংসদ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আর রাজ্যসভায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮। লোকসভায় সংক্রমিত সাংসদদের অধিকাংশই অর্থাৎ ১২ জন বিজেপি শিবিরের।  অন্যদিকে কংগ্রেসের ২, শিবসেনা, ডিএমকে আর আরএলপির এক জন করে সাংসদ ইতিমধ্যে আক্রান্ত হয়েছে। গত ১২ সেপ্টেম্বর সংসদ চত্ত্বরে আরটি পিসিআর টেস্ট করা হয়েছিল। এদিন লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা বলেন, চলমান মহামারির মধ্যেও সাংসদরা লোকসভার অধিবেশনে যোগ দিচ্ছেন। এটি গণতন্ত্রের ওপর আস্থা প্রদর্শন করে।