বছরের শুরুতেই অস্বস্তি বাড়ল অর্থ নয়ছয় কাণ্ডে জড়িত পলাতক মদ ব্যবসায়ী বিজয় মালিয়া। বুধবার, এনফোর্সমেন্ট ডাইরেক্টরেট (ইডি)-এর এক সূত্র জানিয়েছে, মুম্বইয়ের অর্থ নয়ছয় আইন বা পিএমএলএ আদালত বিজয় মালিয়া-কে ঋণ দেওয়া ব্যাঙ্কগুলিকে তার বাজেয়াপ্ত হওয়া সম্পদ বিক্রয়ের অনুমতি দিয়েছে।

আদালত জানিয়েছে এই রায় ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত স্থগিত রাখা হবে। এরমধ্যে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষ বম্বে হাইকোর্টে এই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করতে পারে। সূত্র মতে, এই বাজেয়াপ্ত সম্পত্তির মধ্য়ে মূলত শেয়ারের মতো আর্থিক সুরক্ষিত সম্পদ রয়েছে। ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ইডি বিশেষ পিএমএলএ আদালতে জানিয়েছিল, ভারতীয় স্টেট ব্যাংক বা এসবিআই এর নেতৃত্বাধীন ব্যাঙ্কগুলির কনসোর্টিয়াম যদি বাজেয়াপ্ত সম্পদ বিক্রি করতে চায়, তাহলে তাদের কোনও আপত্তি নেই।

বিভিন্ন ব্যাঙ্ক থেকে প্রায় ৬,২০৩.৩৫ কোটি টাকার ঋণ নিয়েছিল বিজয় মালিয়া। ২০১৩ সাল থেকে এই ধার নেওয়া টাকার উপর ১১.৫ শতাংশ হারে সুদও জমা হয়েছে। এই পুরো টাকাটাই ঋণদাতা ব্যাঙ্কগুলি তার সম্পত্তি বিক্রি করে আদায় করতে চায়। ২০১৯ সালের ৫ জানুয়ারি এক বিশেষ পিএমএলএ আদালত বিজয় মালিয়াকে পলাতক অর্থনৈতিক অপরাধী হিসাবে ঘোষণা করেছিল। একইসঙ্গে তার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করারও নির্দেশ দেওয়া হয়। ২০১৩ সালে ওই বিপুল পরিমাণ ঋণ নিয়ে তা শোধ না করেোই ২০১৬ সালের মার্চ মাসে দেশ ছেড়ে পালিয়েছিল বিজয় মালিয়া। তখন থেকে সে ইংল্যান্ডে রয়েছে। এর মধ্যে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার কথা উঠেছে অনেকবার। কিন্তু এখনও তা সম্ভব হয়নি।