জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছে কেন্দ্র। ৩৭০ ধারা বাতিল করার আগের দিনই গৃহবন্দি করা হয়েছিল দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও  ওমর আবদুল্লাকে। ৩৭০ ধারা বিলোপ হওয়ার ঠিক পরেই তাঁদের গৃহবন্দি করা হয়। এই প্রসঙ্গে এবার মুখ খুললেন মেহবুবা মুফতির মেয়ে সানা ইলতিজা জাভেদ। 

সানা এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে বলেন, সরকার আমার মায়ের মনোবল ভেঙে দিতে চাইছে। কিন্তু ওরা জানে না যে আমার মা মনের দিক থেকে খুবই শক্তিশালী মহিলা। 

আরও পড়ুনঃ পুলওয়ামার কায়দায় হতে পারে নাশকতা, ৭ রাজ্যে জারি সর্বোচ্চ সতর্কতা

কাশ্মীরের মানুষের সঙ্গে এই মুহূর্তে যোগাযোগ করার মাধ্যম নেই। বন্ধ রয়েছে মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিষেবা। অন্যান্য রাজ্যে কর্মরত কাশ্মীরিরা পরিবারের সঙ্গে কোনও ভাবেই যোগাযোগ করতে পারছেন না। এলাকা জুড়ে জারি রয়েছে কার্ফু। যাদের উন্নয়নের জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। কিন্তু তাঁদেরই দিন কাটছে চাপান উতরের মধ্যে। মেহবুবা মুফতির সঙ্গে দেখা করারও অনুমতি পাচ্ছে না মেয়ে  ইলতিজা। 

এই প্রসঙ্গে ইলতিজা বলেন, মার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি চেয়ে অনেকবার পুলিশকে মেসেজ করেছি। কিন্তু তারা অনুমতি দিচ্ছেন না। একজন মা-এর সঙ্গে মেয়েকে দেখা করতে দিতে ওরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। কীসের এত ভয়! আসলে ওরা নিজেরাও জানে যে ৩৭০ ধারা বিলোপ করা অসাংবিধানিক। 

ইলতিজা আরও বলেন, এমনকী,  আমার সঙ্গে কারোকেই দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না। আমি তো একজন সাধারণ কাশ্মীরি, একজন ভারতীয় নাগরিক। একজন তরুণী, যার রাজনীতির সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই, তাকে নিয়ে ওদের কীসের এত ভয়। আমাদের কি কোনও অধিকার নেই! আমায় গ্রেফতার করলেও অবাক হব না। সরকার চায় না যে দেশ-বিদেশের মানুষ দেখতে পাক কী ভাবে এক মুহূর্তে আমাদের থেকে সমস্ত অধিকার কেড়ে নেওয়া হল। 

প্রসঙ্গত, সোমবার ৩৭০ ধারা বিলোপ হওয়ার পরে ইলতিজার সামনে থেকেই গ্রেফতার করা হয় মেহবুবা মুফতিকে।