পলাতক হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী ও তার সহযোগীকে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের ৭৩০০ কোটি টাকা সুদ-সমেত ফেরত দিতে হবে। শনিবার পুণের ঋণ পুনরুদ্ধার ট্রাইব্যুনালের তরফে এই মর্মেই জারি হয়েছে চূড়ান্ত নির্দেশিকা। এদিন অর্ডারটি পাস করেছেন প্রিসাইডিং অফিসার দীপক ঠাক্কর।

মুম্বই-এর ঋণ পুনরুদ্ধার ট্রাইব্যুনালের অতিরিক্ত চার্জ নিয়েছেন ঠাক্কর। ট্রাইব্যুনালের অর্ডারে সাফ বলা হয়েছে যে, পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ককে এককভাবা বা কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে, ৭০২৯,০৬,৮৭,৯৫০.৬৫ টাকা এবং এর ওপর বার্ষিক ১৪.৩০ শতাংশ হারে সুদ সহ টাকা নীরব মোদীকে ফেরত দিতে হবে। বিচারক আরও নির্দেশ দেন যে, এই আদেশ দেওয়ার এক মাসের মধ্যে সারা বিশ্বব্যাপী  নীরব মোদী এবং তাঁর সহযোগী তথা সংশ্লিষ্ট দল, পরিচালক, অংশীদার, কর্মকর্তাক স্থাবর এবং অস্থাবর সম্পত্তির সঠিক পরিমাণ প্রকাশ করেতে হবে। 

প্রসঙ্গত নীরব মোদীর বিরুদ্ধে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের তরফে আরও প্রায় ১৭০০ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগও রয়েছে। সেই মর্মে আরও একটি আদেশ দেওয়া হয় যেখানে বলা হয়েছে আগামী ২৭ জুলাই তারিখ থেকে ২৩২,১৫,৯২,৬৩৬ টাকা ১৬.২০ শতাংশ হারে সুদসহ পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ককে ফেরত দিতে হবে। 

প্রসঙ্গত, পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ককে কয়েক হাজার কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগে নীরব মোদী এখন লন্ডনের একটি কারাগারে রয়েছেন।এখনও পর্যন্ত বেশ কয়েকবার তাকে এদেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু তাঁর প্রত্যার্পণ মামলার নিষ্পত্তি না হলে, তাঁকে এখনই এদেশে নিয়ে আশা মুশকিল।